মঙ্গলবার, ৩০শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

‘লাল–নীল রাজ্য নয়, দৃষ্টিতে শুধু আমেরিকা’

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর প্রথম ভাষণে বিভেদ ভুলে ঐক্যের ডাক দিলেন ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন। তিনি বলেছেন, এখন যুক্তরাষ্ট্রকে সারিয়ে তোলার সময়। নির্বাচনের সময় নানা উত্তেজনাপূর্ণ বক্তব্য, আচরণ ভুলে যাওয়ার তাগিদ দিলেন দেশটির ৪৬তম প্রেসিডেন্ট। কে কাকে ভোট দিয়েছেন, কে কার সমর্থক, সব ভুলে জাতি গঠনের তাগিদ ছিল তাঁর কণ্ঠে। যুক্তরাষ্ট্রের পরম যে মূল্যবোধগুলো, সেগুলোর পুনর্গঠন যে তাঁর প্রথম কাজ, সে কথাও আজ জানালেন বাইডেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ডেলাওয়ার অঙ্গরাজ্যের নিজ শহর উইলমিংটনে জাতির উদ্দেশে বিজয়ী ভাষণ দেন বাইডেন। বাংলাদেশ সময় রোববার সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে ভাষণ শুরু করেন বাইডেন। সে সময় তিনি ট্রাম্পের ভোটারদের ঐক্য ও পুনর্মিলনের আহ্বান জানান। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এসব তথ্য দিয়েছে।

জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে বাইডেন ট্রাম্প-সমর্থকদের প্রতি তাঁর সহযোগিতার কথা বলেন। বাইডেন বলেন, ‘যাঁরা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে ভোট দিয়েছেন, আপনাদের হতাশাটা আমি বুঝি। আমিও বেশ কয়বার পরাজিত হয়েছি। কিন্তু এখন একে অন্যকে সুযোগ দিতে হবে।’

সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, ‘আমাদের দুই পক্ষের আবারও একে অন্যের কথা শোনার সময় এখন।’

নির্বাচনের সময়কার সব ঘটনা ভুলে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে বাইডেন বলেন, ‘এখন সময় কর্কশ কথাবার্তা দূরে ঠেলে রাখার। উত্তেজনা কমিয়ে একজন আরেকজনের দিকে তাকাতে হবে। উন্নতি করতে হলে আমাদের বিপক্ষ দলকে শত্রু ভাবা বন্ধ করতে হবে।’ বাইডেন আরও বলেন, ‘তারা আমাদের শত্রু নয়, তারা আমেরিকান।’

ভাষণে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করায় জনগণকে ধন্যবাদ জানান বাইডেন। তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ জবাব দিয়েছে। তারা আমাদের পরিষ্কার বিজয় এনে দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি (৭ কোটি ৪০ লাখ) ভোট পেয়ে আমরা জয়ী হয়েছি।’

বাইডেন প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, ‘আমি বিভেদ নয়, ঐক্য চাই। কোন রাজ্য নীল, কোন রাজ্য লাল, তা আমি দেখি না। আমি দেখি যুক্তরাষ্ট্রকে।’

বিশ্বের গণতন্ত্রের সূতিকাগার এ দেশটির প্রতি সারা বিশ্বের সম্মান ফেরানোরও প্রতিশ্রুতি ছিল বাইডেনের কণ্ঠে। তিনি বলেন, ‘আমি যুক্তরাষ্ট্রের মূল শক্তির পুনর্গঠন করতে চাই। মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষকে টেনে তুলতে চাই। যুক্তরাষ্ট্রকে এমনভাবে গড়ে তুলতে চাই, যাকে সারা বিশ্ব সম্মান করবে।’

ভাষণে তার রানিংমেট কমলা হ্যারিসকে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন জানান বাইডেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হতে ইলেকটোরাল কলেজের ৫৩৮টি ভোটের মধ‌্যে ২৭০টি পেলেই চলে। সিএনএনের তথ‌্য অনুযায়ী, সর্বশেষ প্রাপ্ত ফলে জো বাইডেন জিতে নিয়েছেন ২৭৩টি ইলেকটোরাল ভোট। আর ট্রাম্প পেয়েছেন ২১৪টি ভোট।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত