সোমবার, ৩০শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

যুক্তরাষ্ট্রে ভোটযুদ্ধের মধ্যেই নতুন যুদ্ধের মহড়া

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

কয়েক ঘণ্টা পরই যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু হবে। নানা কারণে ঐতিহাসিক হয়ে উঠছে এবারের নির্বাচন। লোকজন আগাম ভোট দিয়ে দিয়েছেন অধিকাংশ এলাকায়। মহামারির সময়ের এ নির্বাচন নিয়ে জটিলতা প্রকাশ্য হয়ে উঠেছে এরই মধ্যে।

নির্বাচনের আগের দিন ২ নভেম্বর দুই প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প ও জো বাইডেন শিবিরে আইনযুদ্ধ নিয়ে উত্তেজনা শুরু হয়েছে। নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে আগাম ভিন্ন অবস্থানের কথা ঘোষণা করা হয়েছে উভয় প্রচারণা শিবির থেকে।

উভয় দলের আইনজীবীরা প্রস্তুত। প্রতিটি রাজ্যে রিপাবলিকান ও ডেমোক্রেটিক পার্টির আইনজীবীরা নির্বাচনী বিরোধ নিয়ে আইনযুদ্ধের জন্য প্রস্তুত। গতকাল সোমবার টেক্সাসের এক ফেডারেল বিচারক ১ লাখ ২৭ হাজার ভোট বাতিল করার জন্য রিপাবলিকান পার্টির একটি আবেদন বাতিল করে দিয়েছেন।

টেক্সাসের হিউস্টন এলাকায় ডেমোক্র্যাটদের প্রাধান্য দেখা গেছে এবারের নির্বাচনপূর্ব জরিপে। করোনা মহামারির কারণে এসব এলাকায় এবার ‘ড্রাইভ থ্রো’ (গাড়ি চালিয়ে চালিয়ে ভোট দেওয়া) ভোটকেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হয়েছে। এমন ভোট গ্রহণের পর ১ লাখ ২৭ হাজার ভোটকে গণনায় না আনার জন্য রিপাবলিকান পার্টির পক্ষ থেকে আদালতে আবেদন জানানো হয়।

ফেডারেল বিচারক অ্যান্ড্রু হ্যানেন তিন ঘণ্টার শুনানির পর আবেদনটি বাতিল করে দিয়েছেন। রিপাবলিকান আবেদনকারী আদালতের এ সিদ্ধান্তের জন্য সঙ্গে সঙ্গে ফিফথ সার্কিট কোর্টে আপিল আবেদন করেছেন।

গতকাল আদালতের এ রায় রিপাবলিকানদের প্রয়াসের বিরুদ্ধে গিয়েছে। একই ধরনের আরেকটি মামলায় গতকাল আদালতের হস্তক্ষেপ করতে হয়েছে নেভাদা অঙ্গরাজ্যে। নেভাদার ক্লার্ক কাউন্টিতে আগাম ভোট গণনার ওপর আপত্তি উত্থাপন করে রিপাবলিকান পার্টির পক্ষ থেকে আদালতে আবেদন জানানো হয়। ভোটারদের স্বাক্ষর শনাক্ত করার সফটওয়্যার নিয়ে রিপাবলিকান পার্টি তাদের আপত্তির কথা জানায়। নেভাদার বিচারক রিপাবলিকান পার্টির এ আবেদনও বাতিল করে দিয়েছেন।

ভোট গ্রহণ শুরু হওয়ার অন্তত ১২ ঘণ্টা আগেই আইনযুদ্ধের পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। ডোনাল্ড ট্রাম্প ও জো বাইডেন শিবিরের পক্ষ থেকে মঙ্গলবারের নির্বাচনী ফলাফল নিয়ে তাদের বিরোধপূর্ণ অবস্থানের কথা জানিয়ে দিয়েছে।

ট্রাম্পের প্রচারণা শিবির থেকে বলা হয়েছে, বাইডেন শিবির ভোটকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায়। বাইডেনের প্রচারণা শিবির থেকে বলা হয়েছে, সব ভোট গণনার আগে ডোনাল্ড ট্রাম্প কোনোভাবেই মঙ্গলবার রাতে নিজের বিজয় ঘোষণা করতে পারেন না।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ডেপুটি প্রচারণা ব্যবস্থাপক জাস্টিন ক্লার্ক গতকাল বলেছেন, ডেমোক্র্যাট পার্টি এখন ভয় পাচ্ছে। কারণ, সুইং স্টেটগুলোয় আগাম ভোটে জো বাইডেন যথেষ্ট এগিয়ে থাকার মতো ভোট পাননি। জাস্টিন ক্লার্ক বলেছেন, ডেমোক্র্যাট পার্টি জানে, সশরীরে ভোটে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এগিয়ে থাকবেন। এ এগিয়ে থাকার জন্য ট্রাম্পের বিজয় নিয়ে তাঁরা নিশ্চিত বলে জানিছেন।

পেনসিলভানিয়ার ভোট নিয়ে এমন বিরোধ চাঙা হয়ে উঠতে পারে। এ রাজ্যের আগাম ভোটে ডেমোক্র্যাটরা এগিয়ে থাকবেন—এমন আশা করা হচ্ছে। অন্যদিকে, নির্বাচনের দিন কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে ভোটারদের মধ্যে ট্রাম্প এগিয়ে থাকলেই তিনি নিজেকে বিজয়ী ঘোষণা করে দিতে পারেন বলে আশঙ্কার কথা বলা হচ্ছে।

প্রথম আলোর উত্তর আমেরিকা প্রতিনিধি অনির্বাণ খন্দকার গতকাল রাতে পেনসিলভানিয়া ছিলেন। গতকাল সন্ধ্যার পর তিনি জানিয়েছেন, রাজ্যের ফিলাডেলফিয়া নগরীতে উৎসবের অবস্থা বিরাজ করছে। এ নগরীতে বাইডেনের সমর্থক বেশি বলে মনে হচ্ছে।

নগরীর দক্ষিণে গেলেই অবস্থা কিছুটা ভিন্ন। পাহাড়–সমতলের প্রান্তিক পেনসিলভানিয়ার বহু বাড়ির সামনে ট্রাম্প-পেন্সের পোস্টার শোভা পাচ্ছে বলে অনির্বাণ জানিয়েছেন।

ট্রাম্পের প্রচারণা শিবির থেকে জানানো হয়েছে, তারা সম্পূর্ণ অবগত আছে নির্দিষ্ট সীমার বাইরে ভোট গ্রহণ ও ভোট গণনার জন্য ডেমোক্র্যাটদের পক্ষ থেকে আদালতে আবেদন করা হবে। এ নিয়ে রিপাবলিকান পার্টির আইনজীবীরা সব রাজ্যে প্রস্তুত বলে জানানো হয়েছে।

জো বাইডেনের প্রচারণা শিবির থেকে এ নিয়ে দ্রুত প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে। প্রচারণা শিবিরের ব্যবস্থাপক জেন ও’মালেই এক বিবৃতিতে বলেছেন, ঐতিহাসিকভাবে আমেরিকার মানুষ এবারে আগাম ভোট দিয়েছেন। সব ভোট গণনার আগে কোনো অবস্থাই ডোনাল্ড ট্রাম্পের নিজেকে বিজয়ী ঘোষণার কোনো অবকাশ নেই।

জেন ও’মালেই বলেছেন, অন্য যেকোনো বিষয়ের মতো ট্রাম্প আগাম ভোটের বিষয় নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করছেন। নির্বাচনের রাতেই সব ভোট গণনা সম্পন্ন করার কোনো উদাহরণ নেই। অনুপস্থিতি ভোট এবং দেশের বাইরে থাকা মার্কিন সেনাসদস্যদের ভোট গণনা করার জন্য অপেক্ষা করা হয় সম্পূর্ণ ফলাফল প্রকাশের জন্য। করোনা মহামারির কারণে এবারের পরিস্থিতি আরও ভিন্ন। বাইডেনের প্রচারণা শিবির থেকে বলা হয়েছে, আগাম দেওয়া সব ভোট গণনার আগে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিজয় ঘোষণাকে আইন অনুযায়ী মোকাবিলা করা হবে।

বাইডেনের প্রচারণা শিবির থেকে জানানো হয়েছে, ডোনাল্ড ট্রাম্প ভিত্তিহীনভাবে নিজেকে বিজয়ী ঘোষণা করতে পারেন। সে ক্ষেত্রে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন আমেরিকার জনগণের উদ্দেশে বক্তব্য দেবেন বলে জানানো হয়েছে।

নির্বাচন নিয়ে আইনগত বিরোধ মোকাবিলার জন্য ডেমোক্র্যাটদের পক্ষ থেকে প্রতিটি অঙ্গরাজ্যে বিশেষ টিম গঠন করা হয়েছে। সাবেক সলিসিটর জেনারেল ওয়াল্টার ডেলিংগার এবং পারকিন্স কওই নামক আইন প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী মার্ক এলিয়াস এ দলের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন।

প্রতিটি অঙ্গরাজ্যে ভোট গ্রহণ এবং প্রতিটি ভোট গণনা নিশ্চিত করার বিষয়ে এ আইনগত সহযোগিতা দল নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে।

অন্যদিকে, প্রতিটি রাজ্যে ‘ল’ইয়ারস ফর ট্রাম্প’ গঠন করে ভটের গ্রহণযোগ্যতা ও বিশ্বাসযোগ্যতা রক্ষার জন্য আইনজীবীদের প্রস্তুত রাখা হয়েছে বলে ট্রাম্প শিবির থেকে জানানো হয়েছে।

আমেরিকান সিভিল লিবার্টি ইউনিয়নের ভোটাধিকার সংরক্ষণ প্রকল্পের উপপরিচালক সোফিয়া লিন ল্যাকিন বলেছেন, টেক্সাসের ১ লাখ ২৭ হাজার ভোট গণনা থেকে বাদ দেওয়ার প্রচেষ্টাটি সম্পূর্ণ বেআইনি উদ্যোগ ছিল। এটি সঠিক ভোট গণনা না করে ভোটের ফলাফলকে প্রভাবিত করার প্রয়াস ছিল বলে তিনি উল্লেখ করেন।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত