মঙ্গলবার, ২৩শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

পাঁচ সেট মেট্রোট্রেন আসছে জানুয়ারিতে, ট্রায়াল ১১ কিলোমিটারে

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

উত্তরা ১৮ নম্বর সেক্টর। এখানেই তৈরি হচ্ছে মেট্রোরেলের তৃতীয় স্টেশন ‘উত্তরা দক্ষিণ’। এরই মধ্যে স্টেশনটির কনকোর্স দেখা যাচ্ছে। কনকোর্স হলের নিচে প্লাটফর্মের কাজ করছেন প্রকৌশলী-শ্রমিকরা। আর স্টেশনের দুই প্রান্তে চলছে মেট্রোরেল লাইনে নাট-স্ক্রু লাগানোর কাজ। লাইনের ঠিক উপরে ওভারহেড ক্যাটেনারি সিস্টেম টানা হয়েছে। জানা গেছে, জানুয়ারিতে বাংলাদেশে আসছে পাঁচ সেট মেট্রোটেন। এই মেট্রোটেনগুলো দিয়েই উত্তরা থেকে আগারগাঁও অংশের ১১ কিলোমিটারে ইন্টিগ্রেডেট টেস্ট ও ট্রায়াল রান হবে।

মেট্রোরেলের উত্তরা থেকে আগারগাঁও অংশ পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার কাজ এখন প্রায় পুরোপুরিই দৃশ্যমান। এ অংশে অক্টোবর পর্যন্ত প্রায় ৮০ শতাংশ কাজের অগ্রগতির কথা জানিয়েছে মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ। দেশের প্রথম মেট্রোরেলের এই প্রথম অংশের নির্মাণ শেষের দিকে। দেখা যাচ্ছে, উত্তরা থেকে মেট্রোরেল রুট মিরপুর হয়ে আগারগাঁও পর্যন্ত পৌঁছে গেছে। এর মধ্যে উত্তরার একটি অংশে মেট্রোরেল লাইনের রেলট্রাক পুরোপুরি বসিয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রায় ৮০ শতাংশ কাজ শেষে এখন মেট্রোরেলপথ এবং স্টেশন কাঠামো জানান দিচ্ছে কয়েকদিন পড়েই চলবে স্বপ্নের মেট্রোট্রেন।

মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ বলছে, উত্তরা থেকে আগারগাঁও- এই অংশে গত সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কাজের অগ্রগতি ছিল ৭৬ দশমিক ৩৭ শতাংশ অগ্রগতি ছিল। এখন সে অগ্রগতি আরও বেড়েছে। মেট্রোরেলের প্রকল্প পরিচালক আফতাব উদ্দিন বলেন, ‘মেট্রোরেলের বিদেশি প্রকৌশলী ও পরামর্শকরা চলে এসেছেন। তাদের স্বাস্থ্যগত সুরক্ষায় গাবতলী ও উত্তরায় দুটি ফিল্ড হাসপাতাল পরিচালনা করা হচ্ছে।’ মূলত জাপানি পরামর্শকরা ফিল্ড হাসপাতাল না থাকায় বাংলাদেশে আসতে আপত্তি দিয়েছিল বলে মেট্রোরেল সূত্র বলছে। সে কারণে ফিল্ড হাসপাতাল নির্মাণ করে তাদের দেশে আনা হচ্ছে।

এদিকে ডিএমটিসিএল ম্যানেজিং ডিরেক্টর এম এ এন ছিদ্দিক জানান জানান, উত্তরা-মতিঝিল রুটে চলাচলের জন্য জাপানে কাওয়াসাকি কারখানায় দুই সেট মেট্রোট্রেন নির্মাণ শেষ হয়েছে। আরও তিন সেট ট্রেন নির্মাণ শেষের দিকে। জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে একসঙ্গে পাঁচ সেট মেট্রোট্রেন দেশে এসে পৌঁছবে। তখন ইন্টিগ্রেডেট টেস্ট ও ট্রায়াল রান করা হবে উত্তরা আগারগাঁও অংশে।

উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে আগারগাঁও ঘুরে দেখা গেছে, ডিপো থেকে রেললাইন ভায়াডাক্টে উঠে গেছে। কিছু অংশে পুরোপুরি রেললাইন বসিয়ে স্ক্রু লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত প্রায় ১২ কিলোমিটারের কাজ হচ্ছে প্যাকেজ ৩ এবং ৪-এর অধীনে। তিন বছর আগে ২০১৭ সালে এর নির্মাণ শুরু হয়েছিল। দেখা গেছে, এখানে প্রায় ১১ কিলোমিটার উড়াল পথের মেট্রোরেল পথ নির্মাণ করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রায় সাড়ে ৬ কিলোমিটার উড়ালপথে রেললাইন ওভারহেড ক্যাটেনারি সিস্টেম বেড়া আকারের মাস্ট টানা হয়েছে।

এই ১২ কিলোমিটারে ৯টি স্টেশন রয়েছে। এগুলোর সাব স্ট্রাকচার নির্মাণ শেষ হয়েছে। উত্তরা সেন্টার ও উত্তরা দক্ষিণ এই দুই স্টেশনের কনকোর্স বা ছাদ নির্মাণও প্রায় শেষ। এখন উত্তরা উত্তর, পল্লবী, কাজীপাড়া, শেওড়াপাড়া স্টেশনের কনকোর্স হলের কাজ চলছে। আর উত্তরা উত্তর ও উত্তরা দক্ষিণ ও উত্তরা সেন্টার স্টেশনের প্লাটফর্ম নির্মাণ কাজ চলছে। এছাড়া উত্তরা দক্ষিণ স্টেশনের স্টিল স্ট্রাকচার বসানোর কাজ অনেকটাই এগিয়েছে। আর উত্তরা সেন্টার ও উত্তরা দক্ষিণ স্টেশনের মেকানিক্যাল ইলেকট্রিক্যাল ও পাম্পিংয়ের কাজ শুরু ‍হয়েছে।

এদিকে মেট্রোরেলের আগারগাঁও থেকে কমলাপুর অংশে অক্টোবর পর্যন্ত প্রায় ৪৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে বলে জানা গেছে। আগামী বছরের ডিসেম্বরে মেট্রোরেলের পুরো নির্মাণ কাজ শেষ করার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রায় ২২ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে এই মেট্রোরেল নির্মাণ করা হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত