রবিবার, ২৪শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

হঠাৎ হাসপাতাল ছেড়ে ‘চমক’ দিলেন ট্রাম্প

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

করোনায় আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হঠাৎ করে হাসপাতাল ছেড়ে তার সমর্থকদের চমকে দিয়েছেন। স্থানীয় সময় রোববার কাউকে কিছু না বলে ওয়াল্টার রিড হাসপাতালের বাইরে বেরিয়ে সমর্থকদের চমকে দেন তিনি। এদিন তার অসুস্থতার কথা শুনে যেসব কর্মী-সমর্থক হাসপাতালের সামনে জড়ো হয়েছিলেন, হাসপাতাল ছেড়ে কিছুক্ষণের জন্য গাড়িবহর নিয়ে তাদের দেখা দিয়েছেন ট্রাম্প।

বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চমকে দিতে সফর করবেন টুইটারে এমন ঘোষণা দেওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই গাড়ির ভেতর মাস্ক পরে হাসপাতালের বাইরে ট্রাম্পের গাড়িবহরকে চক্কর দিতে দেখা যায়।

একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, কালো মাস্ক পরা ট্রাম্প বিলাসবহুল গাড়িতে হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে সমর্থকদের হাত নেড়ে অভিবাদনের জবাব দিচ্ছেন। গাড়ির সামনের সিটে যে দুজন বসে আছেন, তারাও মাস্ক পরা।

হাসপাতাল থেকে গাড়ি নিয়ে বের হওয়ার বিষয়টিকে চিকিৎসকরা নিরাপদ হিসেবে জানানোর পর ট্রাম্প হাসপাতাল ছাড়েন বলেন নিশ্চিত করেছেন হোয়াইট হাউসের এক কর্মকর্তা।

হোয়াইট হাউসের ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি জাড ডিরি বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তাঁর সমর্থকদের অভিবাদন জানাতে মোটর শোভাযাত্রায় যোগ দেন এবং এরপরই আবার হাসপাতালে ফিরে গেছেন।

ওয়াল্টার রিড হাসপাতালের চিকিৎসক জেমস ফিলিপস ট্রাম্পের এমন মোটরযাত্রাকে উন্মাদনা বলেছেন। তিনি বলেন, গাড়ির মধ্যে থাকা প্রত্যেকের জীবন এতে ঝুঁকিতে পড়বে। ১৪ দিনের জন্য কোয়ারেন্টিনে না থেকে রাজনৈতিক এমন নাটকের জন্য কেউ মারাও যেতে পারে বলে এই চিকিৎসক মনে করেন।

মহামারি নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়া এবং করোনা ‘তেমন কোনো ভাইরাস নয়’ বলে এক সময় দাবি করা ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তিনি ভাইরাসটি সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে পেরেছেন। এখন সবাইকে তিনি সেটা জানাতে চান।

এর আগে তার চিকিৎসক জানিয়েছেন, ক্রমশই ট্রাম্পের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে এবং সোমবারের মধ্যেই তিনি হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাবেন বলে তাদের দীর্ঘ বিশ্বাস।

হোয়াইট হাউসের চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. শন কনলি বলেন, আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হওয়ার পর দুবার প্রেসিডেন্টের দেহে অক্সিজেনের মাত্রা কমে গিয়েছিল এবং তাতে স্টেরয়েড ওষুধ ডেক্সামেথাসন দেওয়া হচ্ছে।

কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ার পর অন্তত একবার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে কৃত্রিমভাবে অক্সিজেন দেওয়ার প্রয়োজন হয়েছে বলেও জানিয়েছেন ডা. শন কনলি। অবশ্য এর আগে জানানো হয়েছিল ট্রাম্পকে অক্সিজেন দেওয়া হয়নি।

হাসপাতাল থেকে বের হওয়ার আগে ট্রাম্প বলেন, ‘আমি চিকিৎসকদের থেকে ভালো ভালো রিপোর্ট পাচ্ছি। এটা দারুণ হাসপাতাল। আমি তাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।’

এক টুইট বার্তায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, ‘আমি কোভিড সম্পর্কে অনেক কিছু শিখেছি। আমি সত্যিই এটা শিখেছি স্কুলে গিয়ে। এটাই আসল স্কুল। এটি বই পড়ার স্কুল নয়। আমার এটা হয়েছে এবং আমি বুঝতে পেরেছি। এটি একটি খুব মজার বিষয়, আমি আপনাদেরকে এটা সম্পর্কে জানাব।’

কোভিড ১৯ এ সংক্রমিত হলে রোগীদের কমপক্ষে ১০ দিনের জন্য হলেও আইসোলেশনে থাকার নিয়ম মানা হয়। এ সময়টিতে তাঁরা অন্যদের সংক্রমিত করার উচ্চ ঝুঁকিতে থাকেন। শুক্রবার সকালেই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সংক্রমণের কথা জানানো হয়েছে। এরপর তাঁর উপসর্গ নাজুক বিবেচনা করেই হাসপাতালে স্তানান্তরিত করা হয়।

করোনাভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্রে দুই লাখের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। ৭০ লাখের বেশি মানুষ সংক্রমিত। নিউইয়র্কসহ বিভিন্ন এলাকায় নতুন করে লকডাউন নিয়ে ভাবা হচ্ছে। নতুন করে সংক্রমণ দেখা দেওয়ায় বুধবার থেকে নিউইয়র্কের কিছু কিছু এলাকায় লকডাউনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে । এমন অবস্থায় করোনায় সংক্রমিত দেশের প্রেসিডেন্টের বেরিয়ে পড়া নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে হাসপাতালে নেওয়ার পর থেকেই বাইরে রাস্তায় তাঁর সমর্থকদের জড়ো হতে দেখা যায়। যুক্তরাষ্ট্রের পতাকা গায়ে জড়িয়ে , কেউ কেউ মাস্ক পরে , কেউ কেউ মাস্ক না পরে পালাক্রমে ডোনাল্ড ট্রাম্পের দ্রুত সেরে উঠার জন্য স্লোগান দিচ্ছে। পতাকা মোড়া গাড়ির বহর নিয়েও হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকায় একের পর এক মোটর শোভাযাত্রায় যোগ দিচ্ছেন তাঁর সমর্থকেরা। বিভিন্ন নগরীতেও প্রেসিডেন্টের সুস্থতা কামনা করে এমন সমাবেশ ও প্রার্থনা সমাবেশ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত