শনিবার, ৩১শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৬ জনের, শনাক্ত ১৮৯২

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণে ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৮৯২ জন। গত কয়েকদিনের মতোই শনাক্তের তুলনায় সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা বেশি হওয়ার প্রবণতা অব্যাহত ছিল এই সময়ে। এদিন সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ২৩৬ জন।

গত ২৪ ঘণ্টার এই পরিসংখ্যান মিলিয়ে দেশে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন ৪ হাজার ৫৫২ জন। এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত হলেন ৩ লাখ ২৯ হাজার ২৫১ জন। আর এর মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২ লাখ ২৭ হাজার ৮০৯ জন।

মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানার সই করা এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা পরীক্ষায় আরও একটি পরীক্ষাগার বেড়েছে। এদিন ৯৪টি পরীক্ষাগারে মোট ১৫ হাজার ১৪২টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। একই সময়ে মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৪ হাজার ৯৭৩টি। আগের নমুনা মিলিয়ে এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা হলো ১৬ লাখ ৫৯ হাজার ৬৯৭।

গত ২৪ ঘণ্টায় যেসব নমুনা পরীক্ষা হয়েছে, তার মধ্যে ১ হাজার ৮৯২ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১২ দশমিক ৬৪ শতাংশ। আর এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৮৪ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, করোনা আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থতার হার আরও বেড়েছে। এ পর্যন্ত শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৬৯ দশমিক ১৯ শতাংশ। গত কয়েকদিন ধরে এই হার অব্যাহতভাবে বাড়ছে। এর আগে ৪ আগস্ট থেকেই সুস্থতার হার ছিল ৫৭ শতাংশের ঘরে। সবশেষ ১৮ আগস্ট এই হার ছিল ৫৭ দশমিক ৬৭ শতাংশ।

এদিকে, করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত বিবেচনায় এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩৮ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় যারা মারা গেছেন, তাদের মধ্যে পুরুষ ১৯ জন, বাকি ১৭ জন নারী। এখন পর্যন্ত করোনা মৃত্যুবরণ করা মোট মানুষের মধ্যে ৩ হাজার ৫৫৩ জন পুরুষ, ৯৯৯ জন নারী। শতাংশের হারে মৃতদের মধ্যে পুরুষ ৭৮ দশমিক ০৫ শতাংশ, নারী ২১ দশমিক ৯৫ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃতদের তথ্য বিশ্লেষণ করে আরও দেখা যায়, ৩৫ জন হাসপাতালে এবং ১ জন বাড়িতে মৃত্যুবরণ করেছেন। তাদের মধ্যে ষাটোর্ধ্ব ২২ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী ছয় জন, ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী চার জন, ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী দুইজন এবং ১১ থেকে ২০ বছর বয়সী দুইজন।

বয়সের হিসাবে এখন পর্যন্ত মারা যাওয়াদের মধ্যে শূন্য থেকে ১০ বছরের মধ্যে রয়েছে ১৯ জন, (দশমিক ৪৪ শতাংশ), ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে ৩৯ জন (দশমিক ৮৬ শতাংশ), ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ১০৮ জন (২ দশমিক ৩৭ শতাংশ), ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ২৭৬ জন (৬ দশমিক ৬ শতাংশ), ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ৫৯৭ জন (১৩ দশমিক ১২ শতাংশ), ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১ হাজার ২৩৭ জন (২৭ দশমিক ১৭ শতাংশ) এবং ৬০ বছরের বেশি বয়সী ২ হাজার ২৭৬ জন (৫০ শতাংশ)।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত