সোমবার, ২৬শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

সিনহা হত্যা : স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন জমা দিল কমিটি

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যার ঘটনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটি তাদের প্রতিবেদন জমা দিয়েছে।

আজ সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের কাছে এই প্রতিবেদন জমা দেন তদন্ত কমিটির প্রধান চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) ও যুগ্ম সচিব মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। এ সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন কমিটির সদস্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর লে. কর্নেল এস এম সাজ্জাদ হোসেন।

প্রতিবেদন পাওয়ার পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘এটি (সিনহা হত্যা) একটি পুলিশি তদন্তের বিষয়। তারা (কমিটি) তাদের দায়িত্ব পালন করেছে। এখন সচিব এটা বিশ্লেষণ করে দেখবেন। পরবর্তী সময়ে আদালত এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন। আমরা এই রিপোর্টের ব্যাপারে প্রকাশ্য কিছু বলতে পারব না।’

তদন্ত কমিটির প্রধান মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, ‘আমাদের ঘটনাটির উৎস, কারণ, প্রতিকার বিষয়ে সুপারিশ করতে বলা হয়েছিল। আমরা ভালোভাবে বিশ্লেষণ করে এই প্রতিবেদন জমা দিয়েছি। এ বিষয়ে আমরা ৬৮ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি।’

সূত্র জানায়, মূল তদন্ত প্রতিবেদনটি ৮০ পৃষ্ঠার। এতে ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা এড়াতে ১৩টি সুপারিশ রয়েছে। এ ছাড়া মূল প্রতিবেদনের সঙ্গে ২১ পৃষ্ঠার ছবি ও ৫৮৬ পৃষ্ঠার বিভিন্ন সাক্ষীর সাক্ষ্য আছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত চার সদস্যের তদন্ত কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ শাহজাহান আলী ও বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর প্রতিনিধি অতিরিক্ত উপমহাপরিদর্শক জাকির হোসেন খান।

সিনহা হত্যার পর গঠিত চার সদস্যের কমিটিকে ঘটনার উৎস ও কারণ অনুসন্ধান এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা এড়াতে করণীয়সংক্রান্ত সুপারিশ করতে বলা হয়েছিল। এই পরিপ্রেক্ষিতে কমিটি কিছু মৌলিক প্রশ্নের জবাব খোঁজ করে। এর মধ্যে অন্যতম ছিল ঘটনাটি তাৎক্ষণিক নাকি পূর্বপরিকল্পিত এবং নির্দেশদাতা কে, তা খুঁজে বের করা।

গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের মারিশবুনিয়া পাহাড়ে ভিডিও চিত্র ধারণ করে মেরিন ড্রাইভ দিয়ে কক্সবাজারের হিমছড়ি এলাকার নীলিমা রিসোর্টে ফেরার পথে শামলাপুর তল্লাশিচৌকিতে পুলিশের গুলিতে নিহত হন মেজর (অব.) সিনহা।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত