শনিবার, ২৪শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

করোনা আক্রান্ত ২ জনের প্রথম রিপোর্ট নেগেটিভ: আইইডিসিআর

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

করোনাভাইরাস আক্রান্ত ৩ বাংলাদেশির মধ্যে ২ জনের করোনাভাইরাস নেগেটিভ এসেছে। আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় প্রথম পরীক্ষায় এই ফলাফল এসেছে বলে জানিয়েছে আইইডিসিআর।

বুধবার (১১ মার্চ) নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা

আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় প্রথম পরীক্ষার ৭২ ঘণ্টা পর আরেকটি পরীক্ষা হবে। সেখানেও ফলাফল নেগেটিভ আসলে তারা করোনামুক্ত হবেন। তবে তাদেরকে অবশ্যই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা অনুযায়ী চলতে হবে বলেও জানিয়েছেন ডা. ফ্লোরা।

গত ৮ মার্চ ইতালি থেকে দেশে আসা দুই বাংলাদেশির শরীরে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) পাওয়া যায়। এছাড়া তাদের সংস্পর্শে আসা আরও একজন এই ভাইরাসের সংক্রমণে আক্রান্ত হোন। রক্তের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করে তাদের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি নিশ্চিত হওয়া যায়।

সেদিনের ব্রিফিংয়ে আক্রান্তদের সম্পর্কে আইইডিসিআর পরিচালক জানিয়েছিলেন, করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে একজন নারী, দু’জন পুরুষ। ইতালি থেকে দু’জন ঢাকায় আসার পর ঢাকার বাইরে যাননি। তাদের সংস্পর্শে আসা তৃতীয় ব্যক্তিও ঢাকার। ইতালি থেকে যে দু’জন এসেছেন, তারা দু’জন ভিন্ন পরিবারের। এর মধ্যে একজনের সংস্পর্শ থেকে তার পরিবারের এক ব্যক্তির মধ্যে এই ভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছে। আক্রান্তদের বয়স ২০ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে।

তবে, তাদের পরিচয় প্রকাশ করেননি আইইডিসিআর পরিচালক। তবে তিনি জানান, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত তিন জনের বাইরে আরও তিন জনকে কোয়ারেনটাইনে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। আক্রান্ত ও কোয়ারেনটাইনে রাখা ব্যক্তিদের সম্পূর্ণ আলাদা করে রাখা হয়েছে।

আইইডিসিআর পরিচালক বলেন, ইতালি থেকে দুই ব্যক্তি দেশে আসার সময় তাদের শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ ছিল না। পরে জ্বর ও সর্দি-কাশি দেখা দিলে তারা আইইডিসিআরের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। দ্রুত তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় তাদের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

তিনি আরও বলেন, শনিবার, ৭ মার্চ আমরা আক্রান্ত ব্যক্তিদের কন্টাক্ট ট্রেসিং (আক্রান্ত ব্যক্তিদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের চিহ্নিত করা) করেছি। তাদের রক্তের নমুনাও পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের মধ্য থেকে আরও একজনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত