শনিবার, ২৪শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

পদ্মা সেতুর ৩৬০০ মিটার দৃশ্যমান

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

পদ্মা সেতুর ২৪তম স্প্যান বসানো হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বেলা সোয়া একটার দিকে স্প্যানটি বসানো হয়। সেতুর জাজিরা প্রান্তের ৩০ ও ৩১ নম্বর খুঁটির ওপর এটি বসানোর হয়েছে। এতে সেতুর ৩ হাজার ৬০০ মিটার দৃশ্যমান।

এর আগে ২ ফেব্রুয়ারি পদ্মা সেতুর ২৩তম স্প্যানটি বসানো হয়। ৯ দিনের মাথায় বসল ২৪তম স্প্যান।

সেতুর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, স্প্যানটি প্রস্তুত হওয়ার পর মাওয়া প্রান্তের ১২ ও ১৩ নম্বর খুঁটিতে অস্থায়ীভাবে বসানো হয়েছিল। আজ সকাল সাতটার দিকে মাওয়া প্রান্ত থেকে প্রায় তিন হাজার টন ওজনের স্প্যানটি নিয়ে রওনা হয় ভাসমান জাহাজ। ৩১ নম্বর খুঁটির কাছে পৌঁছায় সকাল ১০টার দিকে। এরপরই স্প্যানটি বসানোর কাজ শুরু করা হয়। বেলা ১টা ১৫ মিনিটের সময় স্প্যানটি খুঁটির ওপর বসানো হয়।

সেতু বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির বলেন, সকালে স্প্যানটি নিয়ে মাওয়া প্রান্ত থেকে প্রকৌশলীরা রওনা হন। স্প্যানটি খুঁটির ওপর বসাতে দুপুর হয়ে যায়। আশা করা যাচ্ছে, সব কটি খুঁটির কাজ আগামী এপ্রিলের মধ্যেই সম্পন্ন করা হবে। ৪২টি খুঁটির ওপর ৪১টি স্প্যান বসানো হবে। ইতিমধ্যে ২৪টি স্প্যান বসে গেছে। আগামী জুলাইয়ের মধ্যে সব কটি স্প্যান খুঁটির ওপর বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে।

প্রকৌশলীরা জানান, সেতুতে ২ হাজার ৯৫৯টি রেলওয়ে স্ল্যাবের মধ্যে ৪১০টি বসানো হয়েছে। ২ হাজার ৯১৭টি রোডওয়ে স্ল্যাবের মধ্যে ১২৫টি বসানো শেষ হয়েছে। মোট ৪১টি স্প্যানের মধ্যে চীন থেকে মাওয়ায় এসেছে ৩৩টি। এর মধ্যে ২৪টি স্প্যান বসানো হয়েছে।

এদিকে সেতুর স্প্যানের ওপর সড়কপথে নির্মাণের কাজ জাজিরা প্রান্ত থেকে দিনরাত চলছে। প্রায় তিন হাজার রোড ওয়ে স্ল্যাব বসাতে হবে। এরমধ্যে প্রায় ৩০০টি রোডওয়ে স্ল্যাব বসানো হয়েছে। রোডওয়ে স্ল্যাব বসানোর পর সেখানে পিচ ঢালাইয়ের কাজ শুরু হবে। যা চলতি বছরের শেষের দিকে শুরু হতে পারে বলে জানিয়েছে সেতু সূত্র।

সেতু নির্মাণকারী চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানির একজন একজন প্রকৌশলী জানান, সেতুর ৪২টি পিয়ারের মধ্যে ৩৮টি পিয়ারের কাজ শেষ। বাকি রয়েছে ১০, ১১, ২৬ এবং ২৭ নম্বর পিয়ারের কাজ।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে শুরু হয়েছিল পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ। মাঝখানে সেতুর খুঁটিতে জটিলতায় প্রায় এক বছর পিছিয়ে যায় কাজ। এরপর ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে সেতু চালু করার কথা থাকলেও তা পিছিয়ে ২০২১ সাল করা হয়। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সেতুর ৪২টি খুঁটিতে ৪১টি স্প্যান বসবে। দ্বিতল সেতুটি কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে। চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি লিমিটেড মূল সেতু নির্মাণের কাজ করছে। দ্বিতল এই সেতুর উপরিভাগ দিয়ে চলবে গাড়ি, আর নিচ দিয়ে চলাচল করবে ট্রেন।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত