শুক্রবার, ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

মুজিববর্ষের আগেই ১১টি উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

মুজিববর্ষ শুরু হওয়ার আগেই সরকারের প্রতিশ্রুত উন্নয়ন অগ্রযাত্রার অঙ্গীকার বাস্তবাস্তয়নে সারাদেশে যোগাযোগ নেটওয়ার্ক বৃদ্ধিসহ জনগণের সুপেয় পানি নিশ্চিত করতে পানি শোধনাগারসহ ১১টি উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার (২৬ জানুয়ারি) সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এসব উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন ঘোষণা করেন তিনি।

আগামী ১৭ মার্চ থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করা হবে। ইতোমধ্যে চলতি বছরে ১০ জানুয়ারি জাতির পিতা স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে মুজিববর্ষের ক্ষণগণনা শুরু হয়েছে। আজ ১১টি উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন ঘোষণা শেষে ভিডিও কনফারেন্সিং’-এ সংযুক্তদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রথমে স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতায় উন্নয়ন প্রকল্পগুলোর ভিডিওচিত্র প্রদর্শন করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হেলাল উদ্দিন আহমেদ। প্রধানমন্ত্রী এলজিইডির বাস্তবায়নাধীন ‘গুরুত্বপূর্ণ নয়টি ব্রিজ নির্মাণ’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলায় ১৫ হাজার মিটার চেইনেজে তিতাস নদীর ওপর ৫৭৫ মিটার দৈর্ঘ্য পিসি গার্ডার সেতু এবং মানিকগঞ্জ জেলার সদর উপজেলাধীন মানিকগঞ্জ-সিঙ্গাইর আরএইচডি রাস্তায় কালিগঙ্গা নদীর ওপর ৪৫৬ মিটার পিসি গার্ডার সেতু উদ্বোধন করেন।

এছাড়া সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে চট্টগ্রাম ওয়াসার ‘চট্টগ্রাম পানি সরবরাহ উন্নয়ন ও স্যানিটেশন প্রকল্প’-এর (প্রথম সংশোধিত) আওতায় নির্মিত ‘শেখ রাসেল পানি শোধনাগার’-এর উদ্বোধন ও খুলনা ওয়াসার ‘খুলনা পানি সরবরাহ প্রকল্পের’ আওতায় নবনির্মিত ‘বঙ্গবন্ধু ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট’ উদ্বোধন করেন।

এরপর রেলপথ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মজিবুর রহমান উদ্বোধন হওয়া প্রকল্পগুলোর বিভিন্ন দিক তুলে ধরে একটি ভিডিওচিত্র উপস্থাপন করেন। প্রধানমন্ত্রী রেলপথ মন্ত্রণালয়ের আওতায় রেলওয়ের ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব-তারাকান্দি-জামালপুর-ঢাকা রুটে একজোড়া নতুন আন্তঃনগর ট্রেন ‘জামালপুর এক্সপ্রেস’; ঢালারচর-পাবনা-রাজশাহী রুটে ‘ঢালারচর এক্সপ্রেস’ ও ফরিদপুর রুটে ‘রাজবাড়ী এক্সপ্রেস’ ট্রেনের রুট বর্ধিতকরণ এবং চট্টগ্রাম-সিলেট-চট্টগ্রাম রুটে উদয়ন ও পাহাড়িকা এক্সপ্রেস ট্রেনের বহর পরিবর্তন কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব আসাদুল ইসলাম পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের ডিজিটাল আর্থিক সেবা দেওয়ার জন্য মোবাইল অ্যাপসভিত্তিক ‘পল্লী লেনদেন’ কার্যক্রম উপস্থাপন এবং একটি ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করেন।

সবশেষে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব কামরুন নাহার বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্রের ১২ ঘণ্টা অনুষ্ঠান সম্প্রচার কার্যক্রম উপস্থাপন শেষে ভিডিও চিত্র উপস্থাপন করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেখ হাসিনা দেশের বিভিন্ন প্রান্তে একযোগে ১১টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। উদ্বোধন ঘোষণা শেষে গণভবনে দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

গণভবন প্রান্তের উন্নয়নপ্রকল্পগুলোর উদ্বোধন ঘোষণা শেষে ভিডিও কনফারেন্সিং’র মাধ্যমে বিভিন্ন প্রান্তে উপহারভোগীদের সঙ্গে সংযুক্ত হয়ে মতবিনিময় করেন প্রধানমন্ত্রী।

গণভবন প্রান্তে সাবেক কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী,অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল,পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, এলজিআরডি মন্ত্রী তাজুল ইসলামসহ উন্নয়ন সহযোগী দেশে ও সংস্থার রাষ্ট্রদূত ও প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন প্রধানমন্ত্রীর মূখ্যসচিব আহমদ কায়কাউস।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত