রবিবার, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

বাধা না মেনে ভোট দিতে যাবেন : ইশরাক

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

কোনো বাধা-বিপত্তি না মেনে আগামী ৩০ জানুয়ারি নগরবাসীকে ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন।
আজ শুক্রবার নির্বাচনী প্রচারণার অষ্টম দিনের শুরুতে রাজধানীর কদমতলী থানার ৬১ নম্বর ওয়ার্ডের দনিয়া বর্ণমালা স্কুলের সামনে তিনি এই আহ্বান জানান।
ইশরাক বলেন, ‘বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল জনগণের রাজনীতি করে। আমরা কোনো পরিবারকেন্দ্রিক রাজনীতি করি না। আমরা জনগণের অধিকার জনগণকে ফিরিয়ে দেবো, জনগণের অধিকার ফিরিয়ে দেবো, বাংলাদেশকে আবারও স্বাধীন করব।’
নগরবাসীকে ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আগামী ৩০ তারিখে আপনারা ভোট কেন্দ্রে যাবেন। আপনারা কোনো বাধা-বিপত্তি মানবেন না। আপনাদের সঙ্গে নিয়ে বিএনপি যে আন্দোলনের সূচনা করেছে, আগামী ৩০ তারিখে আপনারা ভোট দিয়ে ধানের শীষকে জয়যুক্ত করবেন।’
‘আপনারা বিএনপি-সমর্থিত সকল কাউন্সিলরদের ভোট দেবেন। কারণ, তারা আমাদের সঙ্গে সংগ্রামে যুক্ত। ইনশাআল্লাহ রাজপথে দেখা হবে। আপনাদের জন্য আমি জীবন দিতেও প্রস্তুত’, যোগ করেন ইশরাক।
আওয়ামী লীগ সরকারের কঠোর সমালোচনা করে ইশরাক বলেন, ‘গত ৯ বছর তাদের অধীনে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন পরিচালিত হচ্ছে। আমি এই এলাকার দুর্দশার কথা জানতে পেরেছি, আমি নিজেও এই এলাকায় এসে ঘুরে দেখে গিয়েছি আপনাদের যে সমস্যাগুলো রয়েছে । আসার সময় দেখলাম বড় একটা নর্দমা। সেই নর্দমার মধ্যে দিয়ে ময়লা পচা আবর্জনাযুক্ত পানি বয়ে যাচ্ছে। তার ঠিক পাশেই ঘনবসতি। কাঁচা বাজার এবং অন্যান্য সামগ্রী দোকানপাট রয়েছে। এই যে দূষিত পরিবেশ বিরাজমান এইটা পুরো ঢাকা শহরের চিত্র।’
বিএনপির এই মেয়র প্রার্থী বলেন, ‘আমাদের প্রাণপ্রিয় ঢাকা নগরীকে এই সরকারের আমলে তিলে তিলে ধ্বংস করে ফেলা হয়েছে। তারা দেখাচ্ছে অনেক উন্নয়ন হয়েছে। খালি বলছে উন্নয়নের জোয়ার, কিন্তু বৃষ্টি আসলে আমরা দেখি এই এলাকায় পানির জোয়ারে রাস্তাঘাট ভেসে যায়। আপনারা খালি একটু চিন্তা করে দেখেন, গত ১৩ বছরে এমন কোনো অপকর্ম নাই এটা এই সরকার করে নাই।’
‘শেয়ার মার্কেট লুট, বাংলাদেশ ব্যাংক লুট, ব্যাংকের ভল্ট থেকে সোনা লুট, সরকারি ব্যাংক লুট, বেসরকারি ব্যাংকগুলো লুট, ধর্ষণ, হত্যা, গুম, খুন, ভোটের অধিকার হরণ, জনগণের কথা বলার অধিকার হরণ, আমাদের বাংলাদেশ ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ করে স্বাধীন করা হয়েছিল এই বাংলাদেশের জন্য না।’
তিনি বলেন, ‘এরা (আওয়ামী লীগ সরকার) এমনই উন্নয়ন করে যে পদ্মা সেতুর একটা করে পিলার বসিয়ে হেডলাইন করে। এমন আজব উন্নয়ন আমরা দেখিনি। একটা করে স্প্যান বসায় আর উদ্বোধন করা হয়। এই ব্রিজ কবে খুলবে? কবে আমরা ব্যবহার করতে পারব? সেটা আমরা জানি না।’
গণসংযোগে ইশরাকের সঙ্গে আছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা সাবেক সংসদ সদস্য সালাউদ্দিন আহমেদ ও তানভীর রবিনসহ স্থানীয় পর্যায়ের নেতাকর্মী।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত