সোমবার, ২০শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং

৩০ জানুয়ারির পরীক্ষায় জয়ী হতেই হবে: তাবিথ

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

আসন্ন নির্বাচনে জয়ী হতেই হবে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির প্রার্থী তাবিথ আউয়াল। নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ৩০ জানুয়ারি একটি পরীক্ষার দিন। এই পরীক্ষায় জয়ী হতেই হবে। তিনি নেতা-কর্মীদের মনোবল ধরে রাখারও আহ্বান জানান।

আজ বুধবার দুপুরে রাজধানীর উত্তর বাড্ডার বেরাইদ এলাকায় নির্বাচনী প্রচার কার্যালয় উদ্বোধনের সময় তাবিথ আউয়াল এসব কথা বলেন।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ৩০ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন হবে।

দলের নেতা–কর্মী ও সমর্থকদের উদ্দেশে তাবিথ আউয়াল বলেন, ‘আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। মনোবল ভাঙা যাবে না। যত সমস্যাই আসুক, তা মোকাবিলা করে বিজয়ী হতে হবে।’ তিনি ওই সময় নিজের প্রতীক ধানের শীষ ছাড়াও ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের বিএনপি–সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী নবী হোসেন (ঘুড়ি প্রতীক) ও নারী কাউন্সিলর প্রার্থী তালেহা ইসলামের (আনারস প্রতীক) পক্ষে ভোট চান। তিনি বলেন, ‘এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে আমরা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করে আবার ফিরিয়ে আনব।’

এর আগে সকালে তাবিথ আউয়াল উত্তর বাড্ডার রহমতউল্লাহ গার্মেন্টস এলাকা থেকে নির্বাচনী প্রচার শুরু করেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘গতকাল (মঙ্গলবার) থেকে নির্বাচনী প্রচারে বাধা দেওয়ার ক্ষেত্রে নতুন নতুন ধারা দেখছি। আগে পোস্টার ছেঁড়া হতো। এখন অনেক জায়গায় ব্যাটারিসুদ্ধ মাইক নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। কিছু ক্ষেত্রে ফেরত দিচ্ছে, কিছু ক্ষেত্রে হদিস পাওয়া যাচ্ছে না।’

নির্বাচনের জন্য সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরিতে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) প্রতি আবারও আহ্বান জানিয়ে তাবিথ আউয়াল বলেন, লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড (সবার জন্য সমান সুযোগ) করে সবার জন্য একটি সুস্থ পরিবেশ তৈরি করুন। নির্বাচনের আরও ১২ দিন বাকি আছে। প্রতিটি দিন যেন সবাই সুস্থভাবে প্রচার চালাতে পারেন।

বাড্ডা এলাকার সমস্যা তুলে বিএনপির মেয়র প্রার্থী বলেন, এই এলাকা নতুন করে সিটি করপোরেশনে যুক্ত হয়েছে। কিন্তু নাগরিক সুবিধা নেই। রাস্তাঘাট খারাপ। সড়কে বাতি নেই। কর্মজীবী নারীদের জন্য এখনো অনিরাপদ। গত মৌসুমে এ এলাকার মানুষ ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছে। তিনি প্রতিশ্রুতি দেন, মেয়র নির্বাচিত হলে নাগরিকদের নিরাপত্তাসহ সব রকমের ব্যবস্থা নেবেন।

নির্বাচনী প্রচারে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আতিকুল ইসলামের ‘চা দোকানি সাজার’ বিষয়ে সাংবাদিকেদের এক প্রশ্নের জবাবে তাবিথ আউয়াল বলেন, ‘ আমার প্রতিপক্ষ তাঁর নির্বাচনী প্রচার যেভাবে পারেন, করবেন। এ ব্যাপারে আমি কিছু বলব না।’

তবে তাবিথ আউয়াল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তাঁর পেজে পোস্ট করা একটি ছবি নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন। ওই ছবিকে নিয়ে অনেকে বলছেন তিনি ‘বাস কনডাক্টর সেজেছিলেন’। ছবিটি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আপনারা দেখবেন, ২০১৫ সালে নির্বাচনী প্রচারের ওই ছবিতে আমি বাসের জানালার বাইরে গণসংযোগের জন্য দাঁড়িয়েছিলাম। সেখানে বাসের কনডাক্টর সাজার কোনো চেষ্টা ছিল না। এটাকে নিয়ে এখন অপব্যবহার করা হচ্ছে।’

তাবিথ আউয়াল আজ উত্তর বাড্ডার পর সাঁতারকুল, মেরাদিয়া, জোয়ারসাহারা এলাকায় গণসংযোগ করেছেন। গণসংযোগে বিএনপির কয়েক শ নেতা–কর্মী, সমর্থক খালেদা জিয়া ও ধানের শীষের পক্ষে স্লোগান দিয়ে মিছিল করেন। তাঁরা প্রার্থীর প্রচারপত্র বিলি করেন।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত