সোমবার, ২০শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং

নির্বাচনি আচরণবিধিতে সজাগ দৃষ্টি রাখছি: তাপস

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মেয়রপ্রার্থী ফজলে নূর তাপস বলেছেন, নির্বাচনী আচরণবিধি যেন লঙ্ঘন না হয় সেদিকে আমরা সজাগ দৃষ্টি রাখছি। পাশাপাশি আমাদের নির্বাচন পরিচালনা কমিটিও সতর্ক রয়েছে।

বুধবার (১৫ জানুয়ারি) ধোলাইরপাড় এলাকায় নির্বাচনি প্রচারণায় নেমে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন। এদিন তিনি শ্যামপুর ও কদমতলী থানায় নির্বাচনি প্রচারে অংশ নিচ্ছেন।

তাপস বলেন, ‘ঢাকাবাসীর কাছ থেকে আমরা ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। আমাদের রূপরেখা ঢাকাবাসী সাদরে গ্রহণ করেছে। তারা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করছে। আমাকে তারা অনেক ভালোবাসা দিয়ে আলিঙ্গন করে রাখছেন। আগামী ৩০ জানুয়ারি নৌকার বিপুল ভোটে জয় হবে। যদি দায়িত্ব পাই তাহলে ঢাকাবাসীর প্রত্যাশা পূরণে প্রথম দিন থেকেই কাজ শুরু করব। সেইসঙ্গে আমরা একটি উন্নত ঢাকা গড়ে তুলব।’

নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘনের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তাপস বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি আচরণবিধি যেন লঙ্ঘন না হয়। আমাদের নির্বাচন পরিচালনা কমিটিও এগুলো মনিটরিং করছে। আমরা যখন যেটা জানতে পারছি সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নিচ্ছি। এলাকাভিত্তিক থানা ও ওয়ার্ড কমিটি গঠন করে দেওয়া হয়েছে। তারপরও গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। কিছুটা হয়তো জনগণের অসুবিদা হতে পারে। আমরা বিষয়গুলো আরও সচেতনতাভাবে দেখব।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি যেখানে যাচ্ছি সেখানেই নির্দেশনা দিচ্ছি, সবাই যেন সুশৃঙ্খভাবে অংশগ্রহণ করে। সাধারণ মানুষের যেন কোনো ভোগান্তি না হয়। সাধারণ মানুষ এবং নেতাকর্মীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে মাঠে নেমে গেছে। উৎসব মুখর পরিবেশে নির্বাচন পরিবেশ এখন বজায় রয়েছে। সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং প্রতিদ্বন্দিতা পূর্ণ একটি নির্বাচন হবে।’

ভোটেরদিন স্বরস্বতী পূজা পড়ছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তাপস বলেন, ‘নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পর প্রার্থী হিসেবে প্রচারণা শুরু করেছি। আসলে আমি দুঃখিত, এ বিষয়টি কেন বা কীভাবে হয়েছে। এটা আগে থেকে নির্ধারণ করা হয়নি। আমি যতদূর জেনেছি, ইলেকশন কমিশন আলোচনা করেছিল। পঞ্জিকা অনুযায়ী এটা হয়তো ভুল হয়ে গেছে।’

আওয়ামী লীগ মনোনীত এ মেয়রপ্রার্থী বলেন, ‘তাদের (হিন্দু সম্প্রদায়) প্রতি আমার সমবেদনা ও সহমর্মিতা রয়েছে। তবে যেহেতু নির্বাচনের নির্ধারিত তারিখ রয়েছে, প্রার্থী হিসেবে আমাদের গণসংযোগ চালিয়ে যেতে হবে। আমি আশা করবো, সবাই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন।’

Print Friendly, PDF & Email

মতামত