সোমবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

ইসিকে মেরুদণ্ডহীন বললেন ইশরাক

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে (ডিএসসিসি) বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন অভিযোগ করে বলেছেন, ‘নির্বাচন কমিশন মেরুদণ্ডহীন, নখদন্তহীন ভূমিকা রাখছে। তিন দিন আগে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে। তারা কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। কালবিলম্ব করছে।’

আজ শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর গোপীবাগের সাদেক হোসেন খোকা কমিউনিটি সেন্টারে নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্দ অনুষ্ঠানে ধানের শীষ প্রতীক পাওয়ার পর সাংবাদিকদের কাছে এসব কথা বলেন ইশরাক।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ হচ্ছে আজ। প্রতীক পাওয়ার পরই আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচার শুরু করতে পারবেন প্রার্থীরা।

নির্বাচন কমিশনের প্রতি ইঙ্গিত করে ঢাকা দক্ষিণের বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন বলেন, ‘তাঁদের অবস্থা আমরা বুঝি। তাদের সেই ক্ষমতা নেই। এ নিয়ে আমরা বিচলিত নই। পরোয়া করি না। আমরা আচরণবিধি মেনে নিচ্ছি।’

ঢাকার প্রয়াত মেয়র সাদেক হোসেন খোকার ছেলে ইশরাক হোসেন বলেন, ‘বাবা বেঁচে থাকলে নিশ্চয়ই আমার জন্য গর্ববোধ করতেন। ৩৫ বছর বিএনপির রাজনীতি করেছেন তিনি। ১৯৯১ সালে তিনি প্রথম ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করেছেন। সেই প্রতীক নিয়ে আমি মেয়র পদে নির্বাচন করছি। আমি দলের প্রত্যাশা পূরণ করব।’

আওয়ামী লীগের মন্ত্রী-সাংসদেরা নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিচ্ছে বলে অভিযোগ করে ইশরাক হোসেন বলেন, ‘তাঁরা প্রচার চালাচ্ছেন। ঘরোয়া বৈঠকেও অংশ নিচ্ছেন। আমাদের কাছে সব তথ্য আছে। আমরা তো এক শহরে বাস করি, ভিনগ্রহে বাস করি না।’

প্রতীক পেলেন দক্ষিণের প্রার্থীরা

অস্থায়ীভাবে স্থাপিত ঢাকা দক্ষিণ সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে সকাল থেকে প্রতীক বরাদ্দ শুরু হয়। রিটার্নিং কর্মকর্তা আবদুল বাতেন প্রতীক বরাদ্দের কার্যক্রম পরিচালনা করেন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নিতে প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন মেয়র প্রার্থীরা। বৈধ সাতজন মেয়র প্রার্থীকে নির্বাচনী প্রতীক দেওয়া হয়েছে।

মেয়র পদে আওয়ামী লীগের শেখ ফজলে নূর তাপস পেয়েছেন নৌকা প্রতীক। তাপসের পক্ষে প্রতীক নিয়েছেন তাঁর আত্মীয় ও আইনজীবী আলী আসিফ খান।

বিএনপির ইশরাক হোসেন পেয়েছেন ধানের শীষ প্রতীক।

এ ছাড়া জাতীয় পার্টির মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন মিলন লাঙল, ইসলামী আন্দোলনের মো. আবদুর রহমান হাতপাখা, ন্যাশনাল পিপলস্ পার্টির (এনপিপি) বাহরানে সুলতান বাহার আম, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. আকতার উজ্জামান ওরফে আয়াতুল্লা ডাব ও গণফ্রন্টের আব্দুস সামাদ সুজন মাছ প্রতীক পেয়েছেন।

দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হওয়ায় মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে অতটা কৌতূহল ছিল না। তবে কাউন্সিলরদের মধ্যে প্রতীক পাওয়া নিয়ে বেশ কৌতূহল আছে।

প্রতীক বরাদ্দ অনুষ্ঠানে ডিএসসিসি নির্বাচনে ৭৫টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে প্রতীক বরাদ্দ চলছে। এর মধ্যে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৩৫ জন প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া ২৫টি সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৮২ জন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর মধ্যে পরে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা আবদুল বলেন, প্রতীক বরাদ্দের মধ্য দিয়ে প্রার্থীরা এখন আইন মেনে প্রচার চালাতে পারবেন। দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মাইকিং করে প্রচার চালানো যাবে। তবে পথসভা ও ঘরোয়াসভা ব্যতীত কোনো জনসভা বা শোভাযাত্রা করা যাবে না। ব্যানার অবশ্যই সাদাকালো হতে হবে। যানবাহন ব্যবহার করে মিছিল বা শোভাযাত্রা করা যাবে না।

যা করা যাবে, যা যাবে না

প্রার্থীরা নির্বাচন কমিশনের অনুমতি নিয়ে ক্যাম্প স্থাপন করতে পারবেন। সেখানে শুধু নির্বাচনী প্রচার চালাতে পারবেন। তবে তার জন্য রিটার্নিং অফিসারের কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে।

কোনো তোরণ নির্মাণ করা যাবে না। জনগণের চলাচলে বিঘ্ন করে কোনো পথসভা করা যাবে না।

নির্বাচনী প্রচারে জীবন্ত প্রাণী ব্যবহার করা যাবে না। দেয়ালে লিখন, মুদ্রণ ও অঙ্কন নিষিদ্ধ। ধর্মীয় উপাসনালয়ে প্রচার নিষিদ্ধ। তবে ঘরোয়া বৈঠকে প্রার্থীরা অংশ নিতে পারবেন।

নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ৩০ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত