রবিবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

সততার সঙ্গে কাজ করতে বিজিবি সদস্যদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

নিয়ম-নীতি মেনে সততার সঙ্গে কাজ করতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যদের কাজ করতে আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিজিবির কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমি আশা করবো আপনারা নিয়ম নীতি মেনে, শৃঙ্খলার সঙ্গে, নিষ্ঠার সঙ্গে নিজেদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করবেন।’

বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) রাজধানীর পিলখানায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) দিবস উপলক্ষে আয়োজিত কুচকাওয়াজেেএসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, বিশ্বের বুকে এখন আমাদের দেশ উন্নয়নের রোল মডেল। এই দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় বেড়েছে, সরকার সবার সুযোগ-সুবিধা-বেতন বাড়িয়েছে, দেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ।

তিনি বলেন, ‘অনেক চড়াই উৎরাই পেরিয়ে এই অর্জন এসছে। আমি চাই আপনারা দেশকে ভালোবেসে দেশের মানুষের জন্য কাজ করবেন। জাতির পিতা স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন। তার লক্ষ্য ছিল ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্রমুক্ত, সুখি, সমৃদ্ধ সোনার বাংলা। তিনি তা গড়ে যেতে পারেন নাই। এখন আমাদের দায়িত্ব বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তোলা। এরইমধ্যে আমরা অনেক এগিয়েছি, অনেক সাফল্য এসেছে। তবে এখানেই শেষ নয়, সামনে আরও এগোতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজ আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। আমাদের আর ভিক্ষা চেয়ে চলতে হয় না। কিন্তু স্বাধীনতার পরপর আমাদের এই অবস্থা ছিল না। অনেক চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে আজকে আমরা এই অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি। কাজেই এটা আমাদের ধরে রেখে এগিয়ে যেতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আপনাদের কাছে আমার একটাই চাওয়া, আপনারা দেশকে ভালোবেসে, দেশের মানুষের প্রতি কর্তব্য করবেন। দেশ যদি উন্নত হয় আপনাদের পরিবার পরিজন তারাই উন্নত হবে। এ দেশের মানুষ উন্নত হবে। এ কথা সবসময় মনে রাখবেন।’

এসময় বিজিবি সস্যদের নিয়ম মেনে শৃঙ্খলা ও সততার সঙ্গে দেশের প্রতি তাদের যে দায়িত্ব তা পালনের আহ্বান জানান শেখ হাসিনা। তিনি বিজিবির অগ্রযাত্রার যেন অব্যাহত থাকে সেই প্রত্যাশা করেন। তিনি বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি জাতির পিতার নিজের হাতে গড়া এই প্রতিষ্ঠান সীমান্তরক্ষী বাহিনী হিসেবে সারা বিশ্বের বুকে নাম করবে।’

এ সময় চোরাচালান, মাদকপাচার, নারী-শিশু পাচার, অনুপ্রবেশ প্রতিরোধে নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করতে বিজিবি সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, উচ্চপদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা এবং কূটনৈতিক কোরের সদস্যরা উপস্থিত রয়েছেন। দিবসটি উপলক্ষে দুপুর ১২টা ২০ মিনিটে বীর-উত্তম ফজলুর রহমান খন্দকার মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী বিজিবি সদস্যদের বিশেষ দরবার গ্রহণ করবেন।

এর আগে ‘বিজিবি দিবস-২০১৯’ উদযাপনে বীর-উত্তম আনোয়ার হোসেন প্যারেড গ্রাউন্ডে বিজিবি দিবসের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সকাল ১০টার দিকে পিলখানায় উপস্থিত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কুচকাওয়াজ পরিদর্শন এবং অভিবাদন গ্রহণ করেন তিনি। পরে এক অনুষ্ঠানে বীরত্বপূর্ণ ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য বিজিবির কর্মকর্তা ও সদস্যদের পদক প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত