বুধবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

জামাত-শিবিরপন্থী শিক্ষকরা আন্দোলনে নেমেছে: উপাচার্য

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

জামাত-শিবিরপন্থী শিক্ষকদের সহায়তায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলন চলছে বলে মন্তব্য করেছেন উপাচার্য ড. ফারজানা ইসলাম। মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দ্বারা নিজ বাসভবনে অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে বের হয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন উপাচার্য ড. ফারজানা ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘যে ভাষায় তারা গালাগালি করেছে তাতে আমরা মর্মাহত। জামাত-শিবিরপন্থী শিক্ষকদের সহায়তায় এ আন্দোলন করছে তারা। সরকারের উচিত হবে এই চক্রকে খুঁজে বের করা।’

শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমার বাড়িতে আমাকে আটকে রেখে যে হামলা করা হয়েছে। আমার বাচ্চাদের আমার বাড়ি থেকে বের হতে দেওয়া হচ্ছে না। এটা কি হামলা নয়?’

মঙ্গলবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতৃত্বে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের একটি অংশ মিছিল নিয়ে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে যায়। এসময় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে তাদের বাদানুবাদ ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আন্দোলনরত কয়েকজন শিক্ষার্থী এতে আহত হন বলে জানা যায়। আহত শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়।

এর আগে সোমবার (৪ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টা থেকে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে তার বাসভবন অবরুদ্ধ করেন আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। অপরদিকে আন্দোলনকারীদের ঘিরে চার স্তর বিশিষ্ট বহর তৈরি করে মুখোমুখি অবস্থান নেন উপাচার্যপন্থী শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

মঙ্গলবার বেলা ১১টায় আন্দোলনকারীরা যখন উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছিলেন, তখন উপাচার্যপন্থী শিক্ষকেরা সেখানে যান। তারা আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের তুলে দিয়ে উপাচার্যের বাসভবনে ঢোকার চেষ্টা করেন। তবে আন্দোলনকারীদের বাধার মুখে তারা বাসভবনে ঢুকতে পারেননি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এর কিছুক্ষণ পর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের একটি মিছিল সেখানে আসে। ওই মিছিলে দুই শতাধিক নেতাকর্মী ছিলেন। মিছিল থেকে উপাচার্যবিরোধী আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা করা হয়। মিছিলকারীরা উপাচার্যবিরোধী আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী-শিক্ষকদের সেখান থেকে সরিয়ে দেন। তারপর তারা ওই জায়গায় অবস্থান নেন। বর্তমানে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে আছেন।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত