মঙ্গলবার, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

‘আ. লী‌গের অনুপ্রবেশকারীদের’ তালিকা যাচ্ছে জেলায় জেলায়

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

আওয়ামী লী‌গের কোনো কমিটিতেই যেন বিত‌র্কিত ও অনুপ্রবেশকারীরা স্থান না পায় সেজন্য তা‌লিকা ক‌রা হয়েছে। তালিকাটি কেন্দ্র থেকে শুরু করে জেলায় জেলায় নেতা‌দের কা‌ছে পাঠিয়ে ‌দেওয়া হ‌চ্ছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) দুপু‌রে রাজধানীর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শেষে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নেত্রী তার নিজস্ব কিছু লোক এবং গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্ট মিলিয়ে একটি তালিকা তৈরি করে পার্টি অফিসে পাঠিয়ে দিয়েছেন। আমি নিজেও আমার জেলার নেতাদের সাথে সেই বিতর্কিত তালিকা নিয়ে কথা বলেছি। আমরা এই ব্যাপারে সতর্ক, যা‌তে সেই তালিকায় থাকা বিতর্কিত ও অনুপ্রবেশকারী কাউন্সিলে কোনো ধরনের জায়গা না পায়।’

‌তি‌নি ব‌লেন, বিতর্কিত কোনো ব্যক্তি যাতে বি‌ভিন্ন পর্যা‌য়ের সম্মেলনে বা কমিটিতে স্থান না পায়, সেজন্য আমরা সতর্ক রয়েছি। নেতাকর্মীদের সেভাবে দিকনির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এ সময় বিভিন্ন জেলা ও আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনগুলোকে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কমিটি করার নির্দেশনার কথা জানান ওবায়দুল কাদের। গঠনতন্ত্রে যেভাবে কমিটি করার দিক নির্দেশনা আছে সে অনুযায়ী কমিটি করতে হবে। এ ব্যাপারে জেলা পর্যায়ের নেতাদের কাছে নির্দেশনা যাবে বলেও জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়ন বিএনপির ভালো লাগবে না, চোখেও পড়বে না। কারণ, তারা দুর্নীতিতে পাঁচবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। বাংলাদেশকে দুর্নীতির আখড়ায় পরিণত করেছে বিএনপি। দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার ফলে বাংলাদেশের মানুষ ছাড়াও জাতিসংঘ এবং সারা বিশ্বের প্রশংসা পাচ্ছেন শেখ হাসিনা। সে কারণেই বিএনপির এত গাত্রদাহ।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, বেগম জিয়ার স্বাস্থ্যের বিষয়টি মেডিকেল বোর্ড ভালো বলতে পারবে। খালেদার পছন্দের ডাক্তারদের নিয়ে বোর্ড গঠন করা হয়েছে। বোর্ডের সদস্যরা বলছে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য ভালো আছে। বিএনপি নেতারা খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে শুধু শুধু রাজনীতি করছে।

সম্পাদক মণ্ডলীর সভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, উপ দফতর ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক শ ম রেজাউল করিম, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, বিএম মোজাম্মেল হক বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক ও ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী আব্দুস সবুর, উপ প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত