রবিবার, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

রূপনগরে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ৩ শিশুসহ ৫ জনের মৃত্যু

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

রাজধানীর রূপনগরে বেলুন ফোলানোর গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে তিন শিশু ও মোট ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ১৪ জন। আহতদের মধ্যে ১১ জন শিশু, একজন নারী ও দুইজন পুরুষ। আহত শিশুদের ছয়জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

আজ বুধবার বিকেল পৌনে চারটার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।

নিহতদের নাম-পরিচয় এখনো জানা যায়নি। তবে স্থানীয় এক প্রত্যক্ষদর্শী নিহতদের নাম জান্নাত, নূপুর, শাহিন ও রমজান বলে দাবি করেন।

সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া জানান, এক নারী ও তিন শিশুসহ চারজনকে মৃত অবস্থায় এই হাসপাতালে আনা হয়। আহতদের মধ্যে চারজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিস্ফোরণে নিহতদের শরীরের বিভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গ ক্ষতবিক্ষত হয়। এ চারজনের দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। যে দুজন সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তারা বিপদমুক্ত।

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে আসেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। তিনি বলেন, এ ঘটনা সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবহিত করা হয়েছে। আহত ও নিহতদের পাশে দাঁড়াতে তিনি নির্দেশনা দিয়েছেন।

রূপনগরের ঘটনায় আহত হয়ে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন এক মেয়ে শিশুর কাছে গণমাধ্যমকর্মীরা বিস্ফোরণের ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে তার চোখেমুখে আতঙ্ক ফুটে ওঠে। ফ্যালফ্যাল করে এদিক সেদিক তাকায়। তারপর জানায়, বেলুন কিনতে সেখানে গেলেও একটু দূরে ছিলাম। হঠাৎ করে বিকট শব্দ শুনে এবং বেশ কয়েকজন সমবয়সীর চিৎকার শুনতে পাই। তার পায়ের আঙুলে ভীষণ ব্যথা করছে বলে সে কান্নাজুড়ে দেয়।সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিহত এক শিশুর খালা জানান, তার বোনের মেয়ে বাবার কাছে বেলুন কেনার বায়না ধরলে তার বাবা তাকে টাকা দিয়ে বেলুন কিনতে পাঠান। কিছুক্ষণ পরে বিস্ফোরণের শব্দ শুনে এসে মেয়ের নিথর দেহ পড়ে থাকতে দেখেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের কর্মকর্তা মো. রাসেল  বলেন, রূপনগরের ১১ নম্বর সড়কে গ্যাস সিলিন্ডারটি বিস্ফোরিত হয়। এটি বাসা-বাড়িতে ব্যবহারের সিলিন্ডার নয়। বেলুন ফোলানোর জন্য যে গ্যাস ব্যবহার করা হয়, সেই গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়েছে।

রূপনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ জানান, মনিপুর স্কুল এলাকায় একজন বিক্রেতা সিলিন্ডার দিয়ে বেলুন ফুলিয়ে বিক্রি করছিলেন। সিলিন্ডার দিয়ে বেলুন ফুলানোর সময় এটির বিস্ফোরণ ঘটে। এ সময় আশেপাশে অনেকে দাঁড়িয়ে ছিলেন। সিলিন্ডার বিস্ফোরণে তিন শিশু ও এক নারী ঘটনাস্থলে মারা যান।

আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঢামেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মোহাম্মদ আলাউদ্দিন জানান, আহতদের মধ্যে ৫/৬ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এদের মধ্যে কারও মাথায় আঘাত লেগেছে। এক শিশুর নাড়ি বেরিয়ে গেছে। জান্নাত নামে এক নারীর ডান হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এক শিশু ঝলসে গেছে। তাকে বার্ন ইউনিটে পাঠানো হয়েছে।

আহতরা হলেন সোহেল (২৫), রিকশাচালক জুয়েল (৩০), জান্নাত (২৫), তানিয়া (৭), মীম (৭) বায়েজীদ (৯) অজুফা (৭) জাামিলা (৭) সিয়াম (১১) অজানা (৭) মোস্তাকিম (৭) নিহাদ(৮) মোরসালিনা(৯) অর্নব/রাকিব(১০) জনি (৯)।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত