শুক্রবার, ২১শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

আবাসিক ভবনে আর গ্যাস সংযোগ নয়: প্রধানমন্ত্রী

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

আবাসিক ভবনে আর গ্যাস সংযোগ না দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, ‘নতুন বাড়ি-ঘর করবে, কিন্তু গ্যাস সংযোগের জন্য বসে আছে, ইটস নট রাইট (এটা ঠিক নয়)। গ্যাস সংযোগ আপনারা আগামীতে পাবেন না, এটা ধরে নেন। আমরা সিলিন্ডারে যাচ্ছি, এখান থেকে আর বোধহয় ফেরার পথ নেই। আমরা সিলিন্ডারে যাবই যাব। সুতরাং সিলিন্ডার ব্যবহারে যাতে লোকজন উৎসাহী হয়, এটা আমাদের দেখতে হবে।’

মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) বৈঠক শেষে সংবাদ ব্রিফিংয়ে প্রধানমন্ত্রীর এসব নির্দেশনার বিষয়ে জানান পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান।

মান্নান জানান, ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকারি সব বাসভবনে নেট লাগানোর নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, এখন থেকে যেসব সরকারি বাড়ি তৈরি করা হবে তার সবগুলোতে মসকিউটো নেটিং থাকতে হবে।এটা নতুন আইডিয়া। ডেঙ্গু ও অন্য সবকিছুর আক্রমণ থেকে বাঁচার জন্য এটা করতে হবে।’ সেই সঙ্গে আর্বজনা ডিসপোজালের ব্যবস্থা থাকতে হবে। তাছাড়া বাড়ির নিচতলায় গাড়ী চালকদের জন্য টয়লেট, নামাজ পড়ার জায়গা ও বিশ্রামের জায়গা থাকতে হবে।

সরকার যেসব ফ্ল্যাট বানাচ্ছে, সেগুলোয় ময়লা ডিসপোজের জন্য আধুনিক, স্বাস্থ্যসম্মত ও ইউজফুল ডিসপোজাল সিস্টেম রাখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

সরকারি বাসভবনে গ্যাস সংযোগের বিষয়েও নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। পরিকল্পনা মন্ত্রী জানান, এখন সরকারি আবাসিক ভবনে গ্যাস সংযোগ না দেওয়ার পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী ধীরে ধীরে সিলিন্ডার গ্যাস ব্যবহারে মানুষকে অভ্যস্ত হওয়ার আহবান জানান।

সরকারি বাসভবনবরাদ্দ পাওয়ার পরও কেউ বাসায় না উঠলে একটা নির্দিষ্ট সময় পরে তার বরাদ্দই বাতিল করে দেয়া হবে বলেও জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, যদি কেউ বাসায় এলটমেন্ট পেয়ে না ওঠেন, – একটা নির্দিষ্ট সময়ের পরে তার বরাদ্দই আমরা বাতিল করে দেব।’

আজকের একনেক সভায় আরও দুটি মেট্রোরেলের লাইন নির্মাণের প্রকল্প (মাস র‍্যাপিড ট্রানজিট বা এমআরটি) অনুমোদন দেয়া হয়। এর মধ্যে একটি হাতিরঝিলের পাশ দিয়ে যাবে।

এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা তুলে ধরে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘হাতিরঝিলের পাশ দিয়ে যে এমআরটি যাবে, খুব সতর্ক থাকতে হবে, হাতিরঝিলের সৌন্দর্য যাতে নষ্ট না হয়। হাতিরঝিলের যে সৌন্দর্য আমরা তৈরি করেছি, তাতে যেন কোনো বিঘ্ন না ঘটে। ঘনবসতিপূর্ণ এলাকা দিয়ে এ লাইন হবে।’

প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যাশা তুলে ধরে এম এ মান্নান বলেন, ‘এমআরটি কোম্পানি (ঢাকা ম্যাস র‍্যাপিড ট্রানজিট কোম্পানির বা ডিএমটিসিএল) হয়তো কোনো এক সময় শক্তিশালী হবে এবং শেয়ারবাজারেও এটি তালিকাভুক্ত হবে। ধানমন্ডিসহ আশপাশ এলাকার জন্যও কিছু চিন্তা-ভাবনা করতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী।’

এছাড়া, আগামীতে ধানমন্ডিকে ধরে আশপাশের এলাকার জন্য মেট্রোরেল তৈরির পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। মেট্রোরেলের ব্যয়ের প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, এখন বেশি জমি অধিগ্রহণ করায় নতুন মেট্রোরেলের ব্যয় বেশি হচ্ছে। এছাড়া মাটির নিচে ও এলিভেটেড দুই ধরনের হওয়ায় কারিগরি অনেক বিষয়ে বেশি অর্থ ব্যয় করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার প্রসঙ্গে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, যেকোনো প্রকল্প সময়ের মধ্যেই সংশোধন করতে হবে। কিন্তু সময় শেষে নিয়ে আসা যাবেনা।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত