বুধবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

যুবলীগের সমবায় সম্পাদক জিকে শামীম আটক

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সমবায় বিষয়ক সম্পাদক এসএম গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জিকে শামীমকে আটক করেছে র‌্যাব।

রাজধানীর নিকেতন এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

সূত্র জানায়, শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে নিকেতনে শামীমের কার্যালয় ঘিরে রাখে র‌্যাব। এর পর বেলা ২টার দিকে তাকে আটক করা হয় বলে র‌্যাব সূত্র জানায়।

শামীমকে আটকের বিষয়টি ছাড়া অভিযানের বিষয়ে এখন পর্যন্ত বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি। অভিযানের বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজিও হননি দায়িত্বশীল কেউ।

রাজধানীর সবুজবাগ, বাসাবো, মতিঝিলসহ বিভিন্ন এলাকায় প্রভাবশালী ঠিকাদার হিসেবে পরিচিত যুবলীগ নেতা এসএম গোলাম কিবরিয়া শামীম।

বিএনপি-জামায়াত শাসনামলেও গণপূর্তে এই শামীমই ছিলেন ঠিকাদারি নিয়ন্ত্রণকারী ব্যক্তি। সেই জিকে শামীম এখন যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সমবায়বিষয়ক সম্পাদক।

এর আগে অবৈধ জুয়া ও ক্যাসিনো চালানোর অভিযোগে র‌্যাবের হাতে আটক হয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া। অস্ত্র ও মাদকের পৃথক দুই মামলায় তাকে সাত দিনের রিমান্ডেও পেয়েছে পুলিশ।

সম্প্রতি ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কয়েকজন নেতার বিষয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার পরই ছাত্রলীগের পদ হারান শোভন-রাব্বানী। এর পর আটক হন খালেদ ও আজ আটক হলেন শামীম।

কোম্পানির একজন কর্মচারী দিদারুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, আজ ভোরবেলা থেকেই র‌্যাবের লোকজন এখানে আসেন। জি কে শামীমের সাতজন নিরাপত্তারক্ষীর অস্ত্রের লাইসেন্স পরীক্ষা করা হয়। দিদারুল ইসলাম দাবি করেন, দেহরক্ষীদের লাইসেন্স থাকার পরও তাদের এখান থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। নিকেতন এলাকাতে জি কে শামীমের আরেকটি বাসা আছে। ওখান থেকে শামীমকে ডেকে নিয়ে আসা হয় ১৪৪ নম্বর বাসার এই অফিসে। তাঁকে নিয়ে এখানে অভিযান চালাচ্ছে র‌্যাব।
রাজধানীর সবুজবাগ, বাসাবো, মতিঝিলসহ বিভিন্ন এলাকায় জি কে শামীম প্রভাবশালী ঠিকাদার হিসেবেই পরিচিত। গণপূর্ত ভবনের বেশির ভাগ ঠিকাদারি কাজই জি কে শামীম নিয়ন্ত্রণ করেন।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত