শনিবার, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

জাপার ভাঙন রক্ষা: বিরোধীদলীয় নেতা রওশন, চেয়ারম্যান জিএম কাদের

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

জাতীয় পার্টির ভাঙন শেষ পর্যন্ত রক্ষা পেয়েছে। দলের কয়েকজন সংসদ সদস্য ও প্রেসিডিয়াম মেম্বার নিয়ে গঠিত কমিটি বৈঠক শেষে সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, এখন থেকে জাপার চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন জিএম কাদের এবং সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে থাকবেন রওশন এরশাদ।

রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১ টায় জাতীয় পার্টির বনানী কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেন দলের মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গাঁ।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, দলের কয়েকজন সংসদ সদস্য ও প্রেসিডিয়াম মেম্বার নিয়ে তারা একটি কমিটি গঠন করেছিলেন। এ কমিটি গঠনে জিএম কাদের ও রওশন এরশাদ দুজনেরই সম্মতি ছিল। কমিটি শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাতে একটি বৈঠক করে। ওই বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে জিএম কাদের দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়া সংসদে বিরোধীদলীয় নেতার দায়িত্ব পালন করবেন রওশন এরশাদ।

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর দলটির নেতৃত্ব নিয়ে টানপোড়েনের মধ্যে এমন সিদ্ধান্ত জানালেন মশিউর রহমান রাঙ্গাঁ।

রাঙ্গাঁ বলেন, ‘জাপার দুটি অংশই আমাকে মহাসচিব হিসেবে চেয়েছিল। আর দলের সংকটে আমি সেই দায়িত্ব পালনের চেষ্ট করেছি। আশা করছি দলের ভাঙন রক্ষার পাশাপাশি সবধরনের সমস্যাও মিটে যাবে।

এদিকে রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে মনোনয়ন দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি। যদিও এর আগে আভাস পাওয়া গিয়েছিল ওই আসনে এরশাদ পুত্র সাদকে মনোনয়ন দেওয়া হতে পারে।

শনিবার রাতে বারিধারা ক্লাবে রুদ্ধদ্বার এই বৈঠক হয়। রাত সাড়ে ৯টা থেকে সোয়া ১১টা পর্যন্ত বৈঠক চলে। জাতীয় পার্টির অভ্যন্তরীণ সংকট থেকে উত্তরণের উপায় বের করতেই মূলত এ বৈঠকের আয়োজন করা হয়।

দলের চেয়ারম্যান, সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা নির্বাচন এবং রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে প্রার্থী মনোনয়ন নিয়ে আলোচনা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে এসএম ফয়সল চিশতী বলেন,‘জাতীয় পার্টির চলমান সংকট নিরসনে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। আমাদের মধ্যে কিছু বিষয়ে মতানৈক্য ছিল। আমরা তা দূর করেছি।’

বৈঠক শেষে তিনি বলেন, ‘এখন থেকে পার্টির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন জিএম কাদের। ম্যাডাম (রওশন এরশাদ) বিরোধীদলীয় নেতা হবেন। আর রংপুর-৩ আসনে দলের প্রার্থী হবেন সাদ এরশাদ।’

সংসদ অধিবেশন শুরুর আগে বেলা ১টায় সংসদ ভবনে বিরোধীদলীয় উপনেতার কক্ষে জাতীয় পার্টির সংসদীয় দলের বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

এই বৈঠকে বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে রওশন এরশাদকে সর্বসম্মতভাবে নির্বাচিত করে তা লিখিতভাবে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীকে অবহিত করা হবে।

জিএম কাদের, রওশন এরশাদ এবং জাতীয় পার্টির মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা ছাড়াও রাতের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, ফখরুল ইমাম, মুজিবুল হক চুন্নু, একেএম সেলিম ওসমান, কাজী ফিরোজ রশীদ, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, সৈয়দ আবুল হোসেন বাবলা, লে. জেনারেল (অব.) মাসুদ উদ্দীন চৌধুরী এবং এসএম ফয়সল চিশতী।

উল্লেখ্য, এক সপ্তাহ ধরে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা হওয়া নিয়ে অভ্যন্তরীণ সংকট তৈরি হয়। গত বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে জাতীয় পার্টির একাংশ রওশন এরশাদকে দলের চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন।

পরে ওইদিনই সংবাদ সম্মেলন ডেকে জিএম কাদের বলেন, ‘রওশন এরশাদকে সম্মান করি, যতটুকু শুনেছি, তিনি নিজ থেকে নিজের কথা বলেননি। শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। বিষয়টি নিয়ে অস্থির হওয়ার কিছু নেই। জাতীয় পার্টি ভাঙেনি। কোনো ভাঙনের মুখে পড়েনি। যে কোনো ব্যক্তি যে কোনো ঘোষণা দিলেই তো তা বাস্তবায়িত হয় না।’

এর আগে মঙ্গলবার বিকালে জাতীয় পার্টির দলীয় প্যাডে নিজেকে সংসদে বিরোধীদলীয় নেতার পদে নিয়োগ দিতে স্পিকারকে চিঠি দেন জিএম কাদের।

পরদিন বুধবার জিএম কাদেরের চিঠির বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে তা গ্রহণ না করার অনুরোধ জানিয়ে পাল্টা চিঠি দেন রওশন এরশাদ।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত