সোমবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

এরশাদের আসনে উপনির্বাচন ৫ অক্টোবর

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

জাতীয় পার্টির সাবেক চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শুন্য হওয়া রংপুর-৩ আসনে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। আগামী ৫ অক্টোবর এই আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

রোববার (১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) এক সংবাদ সম্মেলনে এই তফসিল ঘোষণা করেন দুপুরে ইসির অতিরিক্ত সচিব মোখলেসুর রহমান। এসময় ইসির উপসচিব ফরহাদ আহমেদ খান ও এস এম আসাদুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে মোখলেসুর রহমান জানান, ৫ অক্টোবর সকাল ৯টা থেকে শুরু হয়ে ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। এই নির্বাচনের সব কেন্দ্রেই ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন বা ইভিএম ব্যবহার করা হবে।

উপনির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়পত্র দাখিলের শেষ সময় ৯ সেপ্টেম্বর। মনোনয়নপত্র বাছাই করা হবে ১১ সেপ্টেম্বর, প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর।

মোখলেছুর রহমান বলেন, আগামী ১২ থেকে ১৪ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে আপিল গ্রহণ করা হবে। আপিল নিষ্পত্তি করা হবে ১৫ সেপ্টেম্বর।

নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা এবং সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে রংপুরের সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা, সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে নিয়োগ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ৮৯ বছর বয়সী সাবেক সেনাশাসক ও পাঁচবারের সংসদ এরশাদ দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় ভুগছিলেন। গত ২৬ জুন শারীরিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় তাকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়। গত ৪ জুলাই থেকে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। ১৪ জুলাই তিনি সেখানেই মৃত্যুবরণ করেন। এরপর গত ১৬ জুলাই আসনটি শূন্য হওয়ার গেজেট প্রকাশ করা হয়। ইসি কর্মকর্তারা বলছেন, আসন্ন শূন্য হওয়ার দিন থেকেই নব্বই দিন গণনা করা হয়। এক্ষেত্রে আগামী ১১ অক্টোবরের মধ্যে ওই আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠানের বাধ্যবাধকতা আছে।

রংপুর-৩ আসনটি সদর উপজেলা এবং রংপুর সিটি করপোরেশনের ৯ থেকে ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত। এ আসনের মোট ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৪২ হাজার ৭২ জন। এঁদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ২১ হাজার ৩১০ জন ও নারী ভোটার ২ লাখ ২০ হাজার ৭৬২ জন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও এ আসনটিতে ইভিএমে ভোট নিয়েছিল ইসি। রংপুর-৩ আসনে ১ লাখ ৪২ হাজার ৯২৬ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছিলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রার্থী রিটা রহমান পেয়েছিলেন ৫৩ হাজার ৮৯ ভোট। ভোট পড়েছিল ৫২ দশমিক ৩১ শতাংশ।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত