রবিবার, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

কাশ্মীর: আন্তর্জাতিক আদালতে যাচ্ছে পাকিস্তান

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

কাশ্মীর বিরোধ নিয়ে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে যাবে পাকিস্তান। ভারতের নিয়ন্ত্রণাধীন কাশ্মীর অংশের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করার জের ধরে পাকিস্তান এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে বিবিসির খবরে বলা হয়েছে।

৫ আগস্ট ভারতের বর্তমান বিজেপি শাসিত কেন্দ্রীয় সরকার জম্মু ও কাশ্মীরকে বিশেষ সুবিধা দেওয়া সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে দ্বিখণ্ডিত করার সিদ্ধান্ত নেয়। রাজ্যটিকে দ্বিখণ্ডিত করে জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ নামে দুটি আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল সৃষ্টির সিদ্ধান্ত হয়। এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ভারতীয় হাইকমিশনারকে বহিষ্কার, দুই দেশের মধ্য চলা ট্রেন ও বাস যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় পাকিস্তান। নয়াদিল্লির সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক হ্রাস করার সিদ্ধান্ত জানায় তারা। ভারত অবশ্য জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করার পদক্ষেপকে একটি অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে বিবেচনা করছে। তাদের পক্ষ থেকে পাকিস্তানকে ‘বাস্তবতা মেনে নেওয়ার’ পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

দুই দেশই কাশ্মীরকে নিজেদের অংশ বলে দাবি করে যুগের পর যুগ ধরে বিক্ষিপ্ত বিরোধ জিইয়ে রেখেছে।

গতকাল মঙ্গলবার পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি সংবাদভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল এআরওয়াইকে বলেছেন, ‘কাশ্মীরের মামলাটি আমরা আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সকল আইনি দিক বিবেচনা করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

শাহ মেহমুদ কোরেশি বলেন, মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ কাশ্মীরে ভারতের মানবাধিকার লঙ্ঘনকে ভিত্তি করে মামলাটি করা হবে।

অবশ্য মানবাধিকার লঙ্ঘনের কথা বরাবর অস্বীকার করে আসছে ভারত।

এদিকে, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে ফোনালাপে বলেছেন, ভারত ও পাকিস্তানের উচিত কাশ্মীরের বিষয়টি আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করা।

এক ফরাসি কর্মকর্তা গতকাল মঙ্গলবার জানিয়েছেন, এ সপ্তাহে প্যারিসে বৈঠক করার সময় ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাখোঁ মোদির সঙ্গে কাশ্মীর নিয়ে আলোচনা করবেন।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত