শুক্রবার, ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

তিস্তা নিয়ে প্রতিশ্রুতি আছে: জয়শঙ্কর

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর বলেছেন, দুই দেশের জন্য লাভজনক হয় এমনটা বিবেচনায় নিয়ে ৫৪টি নদীর অভিন্ন পানিবণ্টনের বিষয়ে একটি ফর্মুলা বের করতে বাংলাদেশ-ভারত রাজি হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল কালাম আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি সাংবাদিকদের কাছে এ কথা বলেন।

আলোচনায় তিস্তার পানিবণ্টন নিয়ে কোনো অগ্রগতি আছে কিনা জানতে চাইলে জয়শঙ্কর বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমাদের একটি প্রতিশ্রুতি রয়েছে। এর কোনো পরিবর্তন হয়নি।’

আসামের নাগরিক পঞ্জি (এনআরসি) হলে ওই তালিকায় থেকে বাদ পড়া লোকজনকে বাংলাদেশের পাঠানোর বিষয়টি বিভিন্ন গণমাধ্যমে বলা হচ্ছে। এ নিয়ে জানতে চাইলে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এটি একান্তভাবে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জয়শঙ্কর বলেন, ৫৪টি অভিন্ন নদী নিয়ে কীভাবে নিজেদের স্বার্থ সুরক্ষা করা যায়, তার ফর্মুলা খুঁজছে দুই দেশ। পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতে অভিন্ন নদীর পানিবণ্টন সমস্যার সমাধান করা হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের সব ধরনের উন্নয়নমূলক কাজে ভারতের সর্বাত্মক সহায়তা অব্যাহত থাকবে।

বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যকার অমীমাংসিত তিস্তাচুক্তি প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে জয়শঙ্কর বলেন, এ চুক্তি নিয়ে আগের অবস্থানেই ভারত। প্রতিশ্রুতি মোতাবেক আমরা এ চুক্তি করে যাব।

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রসঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, স্বেচ্ছায়, নিরাপদে এবং মর্যাদার সঙ্গে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বিষয়ে ভারত সব সময় সমর্থন দিয়ে আসছে। এ জন্য ভারত সম্ভাব্য সব ধরনের মানবিক সহায়তা দিতে তৈরি আছে। এরই মধ্যে রাখাইনে ভারত ২৫০টি বাড়ি হস্তান্তর করেছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন বলেন, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এ সফরে আমরা উৎফুল্ল।

চলতি বছরের মে মাসে ভারতের ৩৮তম পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর এটি জয়শঙ্করের প্রথম বাংলাদেশ সফর। তিন দিনের সফরে সোমবার রাতে ঢাকায় এসে পৌঁছান তিনি। শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাঁকে স্বাগত জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন।

বিকেলে তিনি গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর তিন দিনের সফর শেষে বুধবার সকালে কাঠমান্ডুর উদ্দেশে ঢাকা ছেড়ে যাবেন।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত