শনিবার, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ৪১ যাত্রী নিয়ে ইতালির বন্দরে অভিবাসী নৌকা

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

ইতালির উগ্র ডানপন্থী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাতেও সালভেনির নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ৪২ যাত্রী নিয়ে অভিবাসী বোঝাই একটি নৌকা নোঙর করেছে দেশটির ল্যাম্পদুসাতে বন্দরে। তবে দাতব্য সংস্থার এই নৌকাটি ঘিরে রেখেছে পুলিশ। শনিবার (৬ জুলাই) অ্যালেক্স নামে ওই নৌকাটি নোঙর করে বলে জানায় সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান।

এর আগে, গত ২৯ জুন সি-ওয়াচ ৩ নামে অন্য একটি দাতব্য জাহাজ ল্যাম্পদুসাতে নোঙর করে। জাহাজে শরণার্থীসহ ৫৩ যাত্রী ছিল। তখন পুলিশ গ্রেফতার করে ওই জাহাজের জার্মান ক্যাপ্টেন কারলোয়া রেকশেকে। রেকশের বিরুদ্ধে অনুপ্রবেশ ও পুলিশের নজরদারি নৌকা ডোবানোর চেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছিল। যদিও পরবর্তীতে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

দাতব্য সংস্থা মেডেটিরিয়ান সেভিং হিউম্যান অ্যালেক্স নৌকাটির নোঙর বিষয়ে জানায়, সমুদ্রে অস্বাস্থ্যকর অবস্থার জন্য জরুরি প্রয়োজনে অভিযাত্রী বোঝাই নৌকাটি ল্যাম্পদুসায় জরুরি নোঙরে বাধ্য হয়েছে।

ইতালির লেগা পার্টির নেতা মাতেও সালভেনি উপ প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করছেন। গত মাসে তিনি আদেশ জারি করেন, অনুমতি ছাড়া ইতালির জলসীমায় কোনো নৌ যান প্রবেশ করলে, জাহাজের ক্যাপ্টেন, মালিক ও অপারেটরকে ৫০ হাজার ইউরো জরিমানা করা হবে। কারলোয়া রেকশেকে কোনো জরিমানা না করেই ইতালির এক বিচারক ছেড়ে দিলে মাতেও সালভেনি ক্ষুব্ধ হন।

এবার শরণার্থী বোঝাই অ্যালেক্স ল্যাম্পদুসাতে নোঙর করলে সালভেনি টুইটারে জানতে চান, এটিও জরিমানা ছাড়া বেঁচে যাবে কি না? আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা এ বিষয়ে প্রস্তুত আছে। অন্য যেকোনো দেশ নৌকাটি জব্দ করতো বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়া ও লিবিয়া থেকে অনেক শরণার্থী ছোট ছোট নৌকায় সমুদ্রপথে ইতালিতে পাড়ি জমানোর চেষ্টা করেন। অনেক সমুদ্রে ডুবে মরেন। ইতালিও সাগরপথে কড়া নজর রাখে যাতে শরণার্থীরা ইতালিতে ভিড়তে না পারে। কিছু কিছু দাতব্য সংগঠন অসহায় শরণার্থীদের সমুদ্র থেকে উদ্ধারের চেষ্টা করে। দাতব্য সংগঠনগুলোর মতে, আন্তর্জাতিক সমুদ্র আইনে জরুরি পরিস্থিতিতে তারা যেকোনো বন্দরে নোঙরের অধিকার রাখেন।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত