শুক্রবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

দালিয়ানে ডব্লিউইএফ’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

চীনের দালিয়ানে ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) গ্রীষ্মকালীন সভার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) সকালে আনুষ্ঠানিকভাবে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের বার্ষিক সম্মেলন শুরু হয়। দালিয়ান আন্তর্জাতিক কনফারেন্স সেন্টারে চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াং অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের নির্বাহী চেয়ারম্যান এবং প্রতিষ্ঠাতা ক্লাউস সোয়াব এবং লিআনিং প্রদেশের গভর্নর ত্যাং ইউজুন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

তিন দিনব্যাপী এই আয়োজনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধান, সরকার প্রধান, ব্যবসায়ী, সুধী সমাজের প্রতিনিধি, শিক্ষাবিদ এবং শিল্পীসহ দেড় হাজারের বেশি প্রতিনিধি যোগ দিয়েছেন।

সম্মেলনের এবারের প্রতিপাদ্য ‘লিডারশিপ ৪.০- সাকসিডিং ইন এ নিউ এরা অব গ্লোবালাইজেশন’। লিয়াওডং রাজ্যের দালিয়ান উত্তর পূর্ব এশিয়ার অর্থনৈতিক কেন্দ্র এবং উত্তর চীনের হংকং হিসেবেও সুপরিচিত।

চীনের প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধিতে তার দেশের কর্মকাণ্ড অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, ‘আমরা বিদেশি বিনিয়োগের জন্য নতুন যুগের ক্ষেত্র উন্মোচন করবো।‘

সমৃদ্ধি এবং সংস্কার অব্যাহত রাখতে একটি সমন্বিত কৌশল প্রণয়নের ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে অসংগতিপূর্ণ বিধি-বিধান এবং আইনগুলোকে আমরা বাতিল করবো। দেশের উৎপাদনমুখী শিল্প কারখানাগুলো ইতোমধ্যে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে।’

লি কেকিয়াং আরও বলেন, ‘অর্থনীতি এবং বাজার দু’টিই একসঙ্গে বাড়ছে। কাজেই বৈশ্বিক নীতিকে আরও উদারিকরণ এবং ব্যবসাবান্ধব করার প্রয়োজন।

এর আগে সোমবার (১ জুলাই) বিকেলে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ ফ্লাইট হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে।

প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে রয়েছেন, অটিজম এবং নিউরো ডেভেলপমেন্ট ডিজঅর্ডার বিষয়ক জাতীয় উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারপারসন সায়মা ওয়াজেদ হোসেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি খাত বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

এই সম্মেলন থেকে বিশ্ব পরিবেশগত চ্যালেঞ্জ, আঞ্চলিক প্রতিযোগিতা, অর্থনৈতিক অসমতা এবং প্রযুক্তিগত সংকটের বিষয়ে নতুন পরিকল্পনা প্রণয়নের আহ্বান জানানো হবে। ১৯৭১ সালে সুইজারল্যান্ডের জেনেভাভিত্তিক অলাভজনক এই সংগঠন গঠন করা হয়। ২০১৫ সালের জানুয়ারি মাসে সুইস ফেডারেল সরকারের আইনে অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থার স্বীকৃতি পায় এটি।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত