রবিবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

প্রস্তাবিত বাজেট হতাশাজনক: গণফোরাম

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

প্রস্তাবিত ২০২৯-২০ অর্থবছরের বাজেটকে হতাশাজনক উল্লেখ করে তা প্রত্যাখ্যান করেছে গণফোরাম। শনিবার (১৫ জুন) রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত ‘বাজেট ২০১৯-২০: গণফোরাম-এর মতামত’ শীর্ষক বাজেট পরবর্তী প্রতিক্রিয়ায় বাজেট প্রত্যাখ্যান করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন গণফোরামের সাধারণ সম্মাদক রেজা কিবরিয়া। তিনি বলেন, ‘এই বাজেট জনগণের বাজেট নয়, এটি একটি অদূরদর্শী ও দুর্বলভাবে প্রণীত বাজেট। এই বাজেটে দেশের প্রকৃত সমস্যা মোকাবিলার কোনো চেষ্টা নেই।’

এছাড়া বাজেটটি যারা প্রণয়ন করেছে দেশের ভবিষ্যত নিয়ে তাদের কোনো চিন্তা নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এই বাজেটে ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক বৈষম্য, দারিদ্র ও বেকারত্বের মতো সমস্যা মোকাবিলার কোনো উদ্যোগ নেই। এই বাজেটে দেশের জণগণের স্বার্থহানী ঘটেছে।’

এছাড়া তিনি বলেন, ‘বর্তমানে দেশে যারা লুটেপুটে খাচ্ছে এবং যারা অবৈধভাবে বিদেশে অর্থ পাচার করছে বাজেটটি তাদের সুবিধার জন্য করা হয়েছে।’

এছাড়া সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, দেশের ১ কোটি ৮০ লাখ কৃষক বর্তমানে যে সয়কট মোকাবিলা করছে তার কারণ সরকারের অব্যবস্থাপনা ও অদক্ষতা।

এছাড়া গণফোরাম সভপতি ড. কামাল হোসেন বাজেট প্রত্যাখ্যান করে বলেন, ‘অনির্বাচিত প্রতিনিধিদের এই সরকারকে পরিবর্তনের জন্য যা যা করা দরকার তা করবো।’

সংসদে গণফোরামের প্রতিনিধি আছে তাহলে এই সরকার অনির্বাচিত হয় কিভাবে জানতে চাইলে ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘দুএকজন প্রতিনিধি থাকলেই কি সব প্রতিনিধি হয়।’

এছাড়া অপর এক প্রশ্নের জবাবে ড. রেজা কিবরিয়া বলেন, ‘আমরা সংসদে, সংসদের বাইরে সরকারে বিরোধীতা করছি। দেশ এখন জনগণের জন্য শাষিত হচ্ছে না।’ এই বাজেট জনগণকে ক্ষতি করবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, অনির্বাচিত সরকারের কাছ থেকে আসা এই বাজেট দেশকে ঝুঁকির মেুখে ফেলবে। গণফোরাম এই বাজেট প্রত্যাখ্যান করেছে, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টও এই বাজেট প্রত্যাখ্যান করবে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক মন্ত্রী অধ্যাপক আবু সাঈদ ও গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরীসহ অনেকে।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত