সোমবার, ১৯শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

ঈদের দিন সড়কে ঝরলো ১৩ প্রাণ

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন ঢাকাসহ ফরিদপুর, লালমনিরহাট, ঝিনাইদহ, পাবনায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ১৩ জন নিহত হয়েছেন। এসব ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ২৯ জন।

বুধবার ঢাকার আশুলিয়ায় ১ জন ফরিদপুরে ৬ জন, লালমনিরহাটে ৩ জন, ঝিনাইদহে ২ জন ও পাবনার ঈশ্বরদীতে হার্ডিঞ্জ ব্রিজে ট্রেন থেকে পড়ে ১ জন নিহত হয়েছেন।)

প্রতিনিধি ও ব্যুরোর পাঠানো খবর:

ফরিদপুর: সারা দেশে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও আনন্দ উল্লাসে পালিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। আর ঈদের দিন সকালে ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় ৬ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ২০ জন।

বুধবার সকাল ৭টার দিকে সদর উপজেলার ধুলদী রেলগেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা জানায়, ঢাকা থেকে চুয়াডাঙ্গাগামী একে ট্রাভেলসের একটি যাত্রীবাহী বাস ফরিদপুর শহরতলীর ধুলদী রেলগেট এলাকায় একটি মোটরসাইকেলকে সাইড দিতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায়। এ সময় বাসটির সামনের অংশ দুমড়ে-মুচড়ে যায়।

এতে ঘটনাস্থলে ৪ জন বাসযাত্রী নিহত হয় এবং হাসপাতালে ২ জনের মৃত্যু ঘটে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আহতদের উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

লালমনিরহাট: ঈদের দিন সকালে লালমনিরহাটে সড়কে পিকআপ উল্টে প্রাণ গেল ৩ জনের। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ১০ জন। বুধবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে সদর উপজেলার বড়বাড়ি ইউনিয়নের শিমুলতলা বাজারে কুড়িগ্রাম-রংপুর মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, রংপুর থেকে আসা একটি পিকআপ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশের শহীদ মিনারে ধাক্কা দেয়। এতে পিকআপটি উল্টে গিয়ে ঘটনাস্থলেই দুজন ও লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও একজন মারা যান।

হতাহতদের নাম-পরিচয় জানা না যায়নি। পিকআপে থাকা সবাই রংপুর থেকে ঈদ করার জন্য কুড়িগ্রাম যাচ্ছিলেন বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা।

২৯ দিনের সিয়াম সাধনা শেষে বুধবার বাংলাদেশে উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল ফিতর।

ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলায় নতুন কেনা মোটরসাইকেলে ঈদের দিন প্রাণ গেল ভগ্নিপতি বিপুল ও শ্যালক রানার। এ ঘটনায় রানার ভাই ফিরোজ আহত হয়েছেন। বুধবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার খোর্দ্দখালিশপুরে গ্রামের রাস্তায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত বিপুল মহেশপুর উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের আব্দুল আলিমের ছেলে ও রানা একই উপজেলার বাড়ান্দি গ্রামের আসাদুলের ছেলে। আহত ফিরোজকে কোটচাদুপর হাসপাতাল থেকে যশোর মেডিকেল হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

মহেশপুর থানার ওসি রাশেদুল আলম জানান, নিহত বিপুল নতুন কেনা মোটরসাইকেলে শ্যালক রানা ও ফিরোজকে নিয়ে শ্বশুরবাড়ি বাড়ান্দি গ্রাম থেকে নিজ বাড়ি জগন্নাথপুরে যাচ্ছিলেন। পথে খোর্দখালিশপুর গ্রামের চুলকানির মোড়ে আসা মাত্র মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের একটি বাবলা গাছে আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন বিপুল ও রানা।

নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে নিকস্থ কোটচাঁদপুর হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখান থেকে আহত ফিরোজকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। নিহত দুইজনের লাশ কোটচাঁদপুর হাসপাতালে রাখা হয়েছে বলে জানান ওসি।

আশুলিয়া: আশুলিয়ায় পুলিশবাহী ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার সঙ্গে লিচু বোঝাই ট্রাকের সংঘর্ষে নাদিম হোসেন নামে শিল্প পুলিশের এক সদস্য নিহত হয়েছেন। বুধবার সকালে আশুলিয়ার নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের গণকবাড়ি এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

এ সময় আহত হয়েছে শিল্প পুলিশের আরও ৩ সদস্য এবং অটোচালক। তারা হলেন শিল্প পুলিশের নায়েক জাকারিয়া, কনস্টেবল কাউছার, কনস্টেবল আনিছুজ্জামান এবং অটোরিকশা চালক।

আশুলিয়া থানা সুত্রে জানা গেছে, ঢাকা ইপিজেডের নতুন জোন থেকে রাতের ডিউটি শেষে শিল্প পুলিশের ৪ সদস্য ব্যাটারিচালিত একটি অটোরিকশায় করে শ্রীপুরে তাদের ব্যারাকে যাচ্ছিলেন। ব্যারাকে যাবার পথে বলিভদ্র এলাকায় উত্তরবঙ্গ থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী একটি লিচু বোঝাই ট্রাক পুলিশবাহী ব্যাটারিচালিত অটোটিকে ধাক্কা দেয়।

এ সময় শিল্প পুলিশের নায়েক জাকারিয়া, কনস্টেবল কাউছার, কনস্টেবল আনিছুজ্জামান এবং অটো চালক আহত হন। তাদেরকে সাভার এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক কনস্টেবল নাদিম হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন। বাকীদের হাসপাতালে ভর্তি করে সেখানে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

লিচু বোঝাই ট্রাকটি জব্দ, ট্রাকের চালক ও হেলপারকে আটক করা হয়েছে।

ঈশ্বরদী (পাবনা): পাকশী হার্ডিঞ্জ ব্রিজের ওপর থেকে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঈদের দিন বুধবার সকালে হার্ডিঞ্জ ব্রিজ পুলিশ ফাঁড়ির কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যরা টহল দেয়ার সময় ১৫নং গার্ডারের রেল লাইনের ওপর লাশটি পড়ে থাকতে দেখেন।

স্থানীয়রা জানান, অজ্ঞাত যুবকের গায়ে কালো-লাল রঙের ফুলশার্ট ও পরনে লুঙ্গি রয়েছে। এখনো পর্যন্ত তার পরিচয় জানা যায়নি।

পাকশী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম জানান, আমাদের ধারণা, ট্রেনের ছাদে চড়ে হার্ডিঞ্জ ব্রিজ অতিক্রম করার সময় অসাবধানতাবশত ব্রিজের গার্ডারের সঙ্গে ধাক্কা লেগে রেললাইনের উপর পড়ে তার মৃত্যু হতে পারে। ঢাকা থেকে খুলনা অভিমুখি রাতের চিত্রা এক্সপ্রেসের ছাদ থেকে যুবকটি অসাবধানতাবশত পড়ে যেতে পারে।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত