রবিবার, ২৬শে মে, ২০১৯ ইং

খালেদা জিয়ার বিচারে আদালত বসবে কেরানীগঞ্জ কারাগারে

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে চলমান নাইকো, গ্যাটকো, বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি দুর্নীতিসহ ১৭টি মামলা কেরানীগঞ্জ কারাগারে স্থাপিত বিশেষ এজলাসে পাঠানো হচ্ছে। কেরানীগঞ্জ কারাগারে নারী কারাগারের পাশেই এই বিশেষ এজলাস করা হয়েছে।

আইন মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, মামলাগুলো বকশি বাজার আলিয়া মাদ্রাসা ও ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের পাশে স্থাপিত বিশেষ এজলাসে চলমান। এখান থেকে মামলাগুলো কেরানীগঞ্জে কারাগারে স্থাপিত আদালতে পাঠাতে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, এত দিনে কেরানীগঞ্জে নারী কয়েদিদের রাখার জায়গার কাজ শেষ হয়েছে। তাই খালেদা জিয়াকে পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে কেরানীগঞ্জে স্থানান্তর করতে অসুবিধা নেই। আর নিরাপত্তার স্বার্থে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে চলমান মামলাগুলোর বিচারকাজ নিষ্পত্তি করতে কেরানীগঞ্জ কারাগারে বিশেষ আদালত গঠন করা হচ্ছে।

কেরানীগঞ্জ জেলা কারাগারের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা বলেন, কেরানীগঞ্জ কারাগারের ভবন-২ এ বিশেষ আদালত বসানো হতে পারে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ৩৪টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে দুর্নীতির অভিযোগে আছে ৫টি। সেগুলো হলো জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ,নাইকো, গ্যাটকো ও বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতির মামলা। মামলাগুলো সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে (এক-এগারোর সময়) করা।

২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডাদেশ দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত হয়ে কারাগারে যাওয়ার আট মাসের মাথায় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে ওই বছরের ২৮ অক্টোবর সাত বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। খালেদা জিয়া সেই থেকে কারাগারে আছেন। ওই সাজার রায়ের বিরুদ্ধে তিনি হাইকোর্টে আপিল করেছেন। বর্তমানে বিশেষ এজলাসে ১৭টির মামলার বিচার প্রক্রিয়া চলমান আছে।

অন্য ২৯টি মামলা ২০১৪ সালের পর বিভিন্ন সময়ে হয়েছে। মূলত রাষ্ট্রদ্রোহ, হত্যা, ইতিহাস বিকৃতি, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি, ভুয়া জন্মদিন পালনের অভিযোগে এসব মামলা হয়। পুলিশ, সরকারি দলের নেতা-কর্মী ও আইনজীবীরা এসব মামলা করেছেন। এর মধ্যে ২৫টি মামলা হয়েছে ঢাকায়। কুমিল্লায় তিনটি এবং পঞ্চগড় ও নড়াইলে একটি করে মামলা রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত