মঙ্গলবার, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

লাশ হয়ে নানার বাসায় ফিরল জায়ান

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

ছোট্ট শিশু জায়ান। বাবা-মায়ের সঙ্গে দেখতে গিয়েছিল দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কা। রাজনৈতিক পরিবারে জন্ম হলেও রাজনীতির আগুনের আঁচ তার দেখা ছিল না। বৈশ্বিক রাজনীতির প্যাঁচের সাথে ন্যূনতম সম্পর্কও তার হয়নি। ধর্ম বর্ণ রাষ্ট্র নিয়ে মানুষে মানুষে ভেদাভেদ কীভাবে হয় তাও তার জানা হয়নি। সেই ভেদাভেদের আগুনে পুড়েই শেষ হয়ে যেতে হলে নিষ্পাপ শিশু জায়ানকে। হাসপাতালে এখনও ভর্তি তার বাবা মশিউল হক চৌধুরী।

শ্রীলংকায় রেস্তোরাঁয় সিরিজ বোমা হামলায় নিহত আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের নাতি জায়ান চৌধুরীর লাশ বাসায় পৌঁছেছে।

বুধবার বেলা দেড়টার দিকে ছোট্ট জায়ানের লাশবাহী গাড়ি বনানীতে শেখ সেলিমের বাসায় পৌঁছায়। আদরের নাতির লাশ বুঝে নেন নানা শেখ সেলিম।এসময় তিনি কান্নায় ভেঙে পড়েন।স্বজনরাও চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি। এসময় সেখানে এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

জায়ান ছিল শেখ সেলিমের অত্যন্ত প্রিয়।বাবা-মায়ের সঙ্গে নানার বাসায়ই থাকত সে। রাজনৈতিক ব্যস্ততার মাঝেও নাতির জন্য সময় বরাদ্দ রাখতেন সেলিম।নানাকে দেখা মাত্রই জায়ান জড়িয়ে ধরে চুমু খেত।দূরত্ব সেই নাতির অকালে চলে যাওয়া মেনে নিতে পারছেন না শেখ সেলিম।

এর আগে বুধবার বেলা ১২টা ৪২ মিনিটে শ্রীলংকা থেকে জায়ানের লাশ বহনকারী উড়োজাহাজ ঢাকার হযরত শাহজালাল (র.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়। লাশ ১টা ১০ মিনিটে আসার কথা থাকলেও আধা ঘণ্টা আগে এসে পৌঁছেছে।

বিমানবন্দরে শিশু জায়ানের লাশ গ্রহণ করেন শেখ সেলিমের স্বজনরা। সেখানে এক আবেগঘন পরিবেশ সৃষ্টি হয়। পরে লাশবাহী গাড়ি বনানীতে শেখ সেলিমের বাসার উদ্দেশে রওনা হয়। জায়ানের লাশের অপেক্ষায় বিমানবন্দর ও বনানীর বাসায় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরাও ভিড় করেন।

বাদ আসর বনানীর চেয়ারম্যানবাড়ি মাঠে জায়ানের জানাজা হবে। পরে বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

প্রসঙ্গত গত রোববার শ্রীলংকায় ভয়াবহ বোমা হামলায় সেখানে সপরিবারে বেড়াতে যাওয়া শেখ সেলিমের মেয়েজামাই মশিউল হক চৌধুরী গুরুতর আহত এবং তার নাতি জায়ান চৌধুরী নিহত হন। আট বছর বয়সী জায়ান রাজধানীর সানবিম স্কুলের ছাত্র ছিল।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত