শুক্রবার, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

এইচএসসিতেও প্রশ্নফাঁস হবে না বলে আশা মন্ত্রীর

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

নিউজগার্ডেনবিডডটকম:উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা আজ সোমবার শুরু হয়েছে। পরীক্ষা পরিদর্শনে সকাল পৌনে ১০টার দিকে রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজ কেন্দ্রে যান শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। পরে সকাল ১০টার দিকে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। মন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন, গত এসএসসি পরীক্ষায় কোনো প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়নি। এবারও হবে না। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী।

এইচএসসি ও সমমানে এবার আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদ্রাসা ও কারিগরি বোর্ড মিলিয়ে মোট পরীক্ষার্থী ১৩ লাখ ৫১ হাজার ৫০৫ জন। এর মধ্যে আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে শুধু এইচএসসি পরীক্ষার্থী ১১ লাখ ৩৮ হাজার ৭৪৭ জন।

বরাবরের মতো এবারও পরীক্ষা শুরু হওয়ার ৩০ মিনিট আগে কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীদের আসন গ্রহণ করতে হচ্ছে। কোনো পরীক্ষার্থীর কেন্দ্রে আসতে দেরি হলে তার নাম, রোল নম্বর ও দেরি হওয়ার কারণ উল্লেখ করে প্রতিদিন সংশ্লিষ্ট বোর্ডকে জানাবেন কেন্দ্র সচিব।

পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্ব পালনকারী ব্যক্তিদের মধ্যে শুধু কেন্দ্র সচিব সাধারণ মানের একটি ফোন ব্যবহার করতে পারবেন। অন্য কেউ মোবাইল ফোন বা অননুমোদিত ইলেকট্রনিকস যন্ত্র ব্যবহার করতে পারবেন না।

পরীক্ষার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ছাড়া অন্যরা কেন্দ্রের ২০০ গজের মধ্যে প্রবেশ করতে পারবেন না।

এবারও পরীক্ষা শুরুর মাত্র ২৫ মিনিট আগে কোন সেট প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা হবে, তা নির্ধারণ করে জানানো হয়।

পরীক্ষার হলে প্রশ্নপত্র বণ্টনে যাতে কোনো অসুবিধা না হয়, এ জন্য নিয়মিত ও অনিয়মিত পরীক্ষার্থীদের আলাদা কক্ষে আসনবিন্যাস করে প্রশ্নপত্র বিতরণ করার নির্দেশনা রয়েছে।

ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের সচিব তপন কুমার সরকার  বলেন, সিলেবাস-সংক্রান্ত কারণে প্রশ্নপত্র বিতরণে যাতে কোনো অসুবিধা না হয়, এ জন্য কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের (কেন্দ্র সচিব) নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এদিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা বোর্ডগুলো প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধসহ পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে। এর অংশ হিসেবে আজ ১ এপ্রিল থেকে আগামী ৬ মে পর্যন্ত দেশের সব ধরনের কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে প্রশ্নপত্র ফাঁসসংক্রান্ত গুজব বা এ কাজে তৎপর চক্রগুলোর কার্যক্রমের বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলো নজরদারি জোরদার করেছে বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

এইচএসসির লিখিত পরীক্ষা শেষ হবে ১১ মে। এরপর ১২ থেকে ২১ মের মধ্যে ব্যবহারিক পরীক্ষা শেষ করতে হবে।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত