রবিবার, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

এই রেকর্ড আছে শুধু পাকিস্তানের

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

নিউজগার্ডেনবিডডটকম:

ইমাম-উল-হকের অভিষেক আবুধাবিতে দুই বছর আগে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে আহমেদ শেহজাদের জায়গায় সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। সেলিম এলাহীর পর পাকিস্তানের ইতিহাসে দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ানডে অভিষেকেই সেঞ্চুরি করে হইচই ফেলে দিয়েছিলেন এই ওপেনার। কাল দুবাইয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে শারীরিক অসুস্থতার জন্য খেলতে পারেননি ইমাম-উল-হক। তাঁর স্থলে ওয়ানডে অভিষেকের সুযোগ পেয়েই সেঞ্চুরি করে বসেন পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটে পরীক্ষিত ব্যাটসম্যান আবিদ আলী।

অর্থাৎ, শেহজাদের জায়গায় ইমাম অভিষিক্ত হয়ে পেয়েছিলেন সেঞ্চুরি। আর ইমামের জায়গায় আবিদ অভিষিক্ত হয়েও পেলেন সেঞ্চুরির দেখা। কিন্তু দল জিততে না পারলে এই সেঞ্চুরির মূল্য কী? একই অনুতাপে পুড়তে পারেন মোহাম্মদ রিজওয়ানও। তিনিও যে পেয়েছেন তিন অঙ্কের দেখা। অথচ জোড়া সেঞ্চুরি নিয়েও পাকিস্তান ২৭৭ রান তাড়া করতে পারল না!

১১২ রানে আউট হন আবিদ। রিজওয়ান ফেরার আগে খেলেছেন ১০৪ রানের ইনিংস। কিন্তু এই জোড়া সেঞ্চুরির পরও শেষ ওভারে ৬ বলে ১৭ রানের কঠিন সমীকরণে পড়ে যায় পাকিস্তান। এখান থেকে শেষ পর্যন্ত তাঁরা হেরেছে ৬ রানে। এভাবে রান তাড়া করে হার বেশ চমকে দেওয়ার মতো ব্যাপারই বটে। ক্রিকেট ইতিহাসে এমন নজির খুব বেশি নেই। ওয়ানডেতে রান তাড়ায় জোড়া সেঞ্চুরি পেয়েও হারের এটি চতুর্থ নজির। তবে পাকিস্তান একটি জায়গায় প্রথম।

আগে ব্যাট করে ৭ উইকেটে ২৭৭ রান তুলেছিল অস্ট্রেলিয়া। পাকিস্তান এই রান তাড়া করতে নেমে ৮ উইকেটে ২৭১ রানে থেমেছে। ওয়ানডে ইতিহাসে এই প্রথমবারের মতো কোনো দল ২৮০ রানের নিচে লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে জোড়া সেঞ্চুরি পেয়েও হারের মুখ দেখল। রান তাড়া করতে নেমে পাকিস্তান কিন্তু এর আগেও জোড়া সেঞ্চুরি পেয়েছে এবং সেবার জয়ও পেয়েছিল দলটি। ২০০১ শারজায় শ্রীলঙ্কার ২৭২ রান তাড়া করতে নেমে সেঞ্চুরি করেছিলেন নাভিদ লতিফ ও ইনজামাম উল-হক। কিন্তু ১৮ বছর পর প্রায় একই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পারল না দলটি।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত