শুক্রবার, ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

নারীর মুক্তি খালেদা জিয়ার মুক্তির সঙ্গে জড়িত: ফখরুল

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

নিউজগার্ডেনবিডডটকম:

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বাংলাদেশে নারীরা সবচেয়ে বেশি নিগৃহীত হচ্ছে। নারীদের নির্যাতন করে কারাগারে পাঠানো হচ্ছে। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হলে নারী অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশের গণতন্ত্রের মুক্তি খালেদা জিয়ার মুক্তির সঙ্গে জড়িত। নারী সমাজের মুক্তিও খালেদা জিয়ার মুক্তির সঙ্গে জড়িত।

আজ শুক্রবার সকালে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল আয়োজিত মানববন্ধনে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

আন্তর্জাতিক নারী দিবসে নারী সমাজকে অভিনন্দন জানান বিএনপির মহাসচিব। নারীর অধিকারের সংগ্রামের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেন তিনি।

কারাবন্দী খালেদা জিয়ার কথা উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, তিনি (বিএনপির চেয়ারপারসন) বাংলাদেশে নারী জাগরণের জন্য আন্দোলন করছিলেন। নারীর ক্ষমতায়ন করার জন্য কাজ করেছিলেন। তিনি মেয়েদের লেখাপড়ার জন্য অবদান রেখেছেন। তাঁকে মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে রাখা হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিবের অভিযোগ, সরকার মা-বোনদের নির্যাতন করে কারাগারে পাঠাচ্ছে। এই সরকার জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই নারী দিবসে নারী সমাজ ও সবাইকে শপথ নিতে হবে যে, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে নারী সমাজের আন্দোলনকে আরও বেগবান করতে চাই। আসুন এই দিনে সবাই শপথ গ্রহণ করি, বাংলাদেশের গণতন্ত্রের মুক্তি খালেদা জিয়ার মুক্তির সঙ্গে অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত। এবং নারী সমাজের মুক্তিও খালেদা জিয়ার মুক্তির সঙ্গে জড়িত।

নারী সমাজ ও খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান বিএনপি মহাসচিব। তিনি নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, জনগণের অধিকার ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে পারলে নারীদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হবে।

মানববন্ধনে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস দাবি করেন, এই সরকারের সময় নারীরা সবচেয়ে বেশি নির্যাতিত হচ্ছে।

মানববন্ধনে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হেলেন জেরিন খানের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, ঢাকা জেলা মহিলা দলের সভাপতি সাবিনা ইয়াসমীন প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত