শুক্রবার, ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

আইসিসিকে সাহায্য করেননি, নিষিদ্ধ হলেন জয়াসুরিয়া

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

নিউজগার্ডেনবিডডটকম:  আইসিসির লঙ্কা-অভিযান শুরু হয়েছিল গত বছর। লক্ষ্য, দুর্নীতিতে ছেয়ে যাওয়া শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট মহলকে ঠিকঠাক করা। সেই অভিযানের অংশ হিসেবে আইসিসি শাস্তি দিয়েছে দেশটির সাবেক ক্রিকেটার ও অধিনায়ক সনৎ জয়াসুরিয়াকে। সব ধরনের ক্রিকেট-কার্যক্রম থেকে তাকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে। জয়াসুরিয়া অবশ্য কোনো দুর্নীতির কারণে শাস্তি পাননি, তদন্তে আইসিসিকে যথেষ্ট সহযোগিতা না করাই তাঁর অপরাধ। তার মাশুল দিলেন ১৯৯৬ বিশ্বকাপজয়ী শ্রীলঙ্কা দলের অন্যতম সদস্য জয়াসুরিয়া।

আইসিসির মহাব্যবস্থাপক অ্যালেক্স মার্শাল বলেছেন, জয়াসুরিয়া আইসিসির দুর্নীতিবিরোধী নীতিমালার দুটি বিধি ভঙ্গ করার কারণে এমন শাস্তি পেয়েছেন। ১১০ টি টেস্ট ও ৪৪৫ টি ওয়ানডে খেলা জয়াসুরিয়ার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ আনা হয়েছিল গত বছরের অক্টোবরে। আইসিসি সেই সময়ে তদন্তের স্বার্থে জয়াসুরিয়ার কাছ থেকে তার মোবাইল ফোন ও ল্যাপটপ চেয়েছিল। কিন্তু সেগুলোতে ব্যক্তিগত অনেক বিষয় রয়েছে জানিয়ে আইসিসিকে কিছুই দেননি জয়াসুরিয়া। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই এখন তাঁকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। মার্শাল বলেন, ‘আইসিসির তদন্ত কতটা গুরুত্বপূর্ণ, তা এই শাস্তি থেকেই স্পষ্ট। খেলাটিকে দুর্নীতিমুক্ত করতে আমাদের যে প্রচেষ্টা, তাতে কারওর সহযোগিতা আদায় করে নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ এক অস্ত্র।’

ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে এখন পুরোদমে রাজনীতিতে মনোনিবেশ করেছেন জয়াসুরিয়া। লঙ্কান সংসদ সদস্য তো হয়েছেনই, একবার ডেপুটি মন্ত্রিত্বও পেয়েছিলেন। শ্রীলঙ্কার প্রধান নির্বাচকের দায়িত্বও পালন করেছেন। কিন্তু দুর্নীতিবিরোধী অভিযানে আইসিসির দুর্নীতিবিরোধী ইউনিটকে (এসিইউ) সাহায্য না করে বরং তাদের কাজে বাধা সৃষ্টি করেছেন বলেও অভিযোগ আছে তার নামে। যার ফলাফল এই শাস্তি। এই দুই বছর ক্রিকেট সম্পর্কিত কোনো কিছুর সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারবেন না তিনি।

জয়াসুরিয়া অবশ্য শাস্তিটা মেনে নিয়েছেন, ‘আইসিসি ও এসিইউ’র সঙ্গে আলোচনা করে আমার আইনজীবী দুই বছরের নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি মেনে নিয়েছেন। ১৫ অক্টোবর ২০১৮ থেকে শুরু হবে শাস্তির মেয়াদ।’

এই অপরাধে তাঁর সর্বোচ্চ শাস্তি হওয়ার কথা পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞা। কিন্তু জয়াসুরিয়ার ‘অতীতের ভালো আচরণ’-এর কথা মাথায় রেখে শাস্তি কমিয়ে দুই বছর করা হয়।

এর আগেও আইসিসির শুদ্ধকরণ অভিযানের অংশ হিসেবে নিষেধাজ্ঞার শাস্তি পেয়েছেন শ্রীলঙ্কার সাবেক দুই পেসার নুয়ান জয়সা ও দিলহারা লোকুহেত্তিগে।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত