সোমবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

একাত্তরের ভূমিকার জন্য জামায়াতের ক্ষমা চাওয়া উচিত: নজরুল

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

নিউজগার্ডেনবিডডটকম:  বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, ১৯৭১ সালের ভূমিকা নিয়ে জামায়াতের ক্ষমা চাওয়ার দাবি যুক্তিসংগত। তিনি আরও বলেন, যারা গণতন্ত্র হত্যা করেছে, তারাও আজ পর্যন্ত জনগণের কাছে ক্ষমা চায়নি।

আজ বুধবার রাজধানীর চন্দ্রিমা উদ্যানে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানানো শেষে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে নজরুল ইসলাম খান এই মন্তব্য করেন। তাঁতি দলের ৩৯ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দলটির নেতা-কর্মীরা জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান।

১৯৭১ সালের ভূমিকা নিয়ে জামায়াতের ভেতর থেকে ক্ষমা চাওয়ার দাবি উঠেছে—এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে নজরুল ইসলাম খান বলেন, এই দাবি তো সবার। জামায়াত স্বাধীনতা যুদ্ধের বিরোধিতা করেছে। এ জন্য তাদের দুঃখ, লজ্জা ও ক্ষমা প্রার্থনা করা উচিত। এটা যেমন যুক্তিসংগত দাবি, তেমনি আরও যুক্তিসংগত দাবি আছে। স্বাধীনতার বিরোধিতা যারা করেছে, অবশ্যই তাদের শাস্তি ও বিচার চাই।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, তাঁরা মনে করেন, যারা অপরাধ করেছে, তাদের সবার ক্ষমা চাওয়া উচিত। আর তাঁরা যদি কোনো দোষ করেন, তাহলে তাঁদেরও উচিত জনগণের কাছে ক্ষমা চাওয়া। কিন্তু এ দেশে সেই রীতির প্রচলন নেই।

জামায়াত বিলুপ্ত করে আলাদা দল গঠন করার বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে নজরুল ইসলাম খান বলেন, এটা তাদের নিজস্ব ব্যাপার।

জামায়াত ২০-দলীয় জোটে নেই—এ বিষয়ে জানতে চাইলে নজরুল ইসলাম বলেন, তাঁর জানা মতে, ২০-দলীয় জোটে কোনো পরিবর্তন ঘটেনি। জামায়াতের পক্ষ থেকে তাঁদের কখনো বলা হয়নি যে, তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, জোটের সঙ্গে থাকবে না। তবে জামায়াত একটি আলাদা রাজনৈতিক দল। সেই দলের সিদ্ধান্ত নেওয়ার সুযোগ, অধিকার ও ক্ষমতা তাদের আছে। কিন্তু তাঁদের জানা মতে, এমন কোনো সিদ্ধান্ত জামায়াত নিয়েছে বলে তাঁরা শোনেননি।

বিএনপি নেতাদের উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেওয়ার বিষয়ে নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘আমরা বলেছি, আমাদের দলে কেউ কোনো না কোনোভাবে আছে—এমন কেউ উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলে, তাঁর বিরুদ্ধে আমরা দলীয় ব্যবস্থা নেব।’

জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানানোর সময় তাঁতি দলের সভাপতি হুমায়ুন ইসলাম খান, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদসহ নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত