শুক্রবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

যুবলীগ নেতা মিলনকে তুলে নেওয়ার অভিযোগ, র‌্যাবের অস্বীকার

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: নাটোর সদর উপজেলার যুবলীগ নেতা জামিল হোসেন মিলনকে র‌্যাবের পরিচয়ে তুলে নেওয়া অভিযোগ করেছে তার পরিবার। তবে বিষয়টি অস্বীকার করে র‌্যাব দাবি করেছে, তারা কিছুই জানেন না।

গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার তালতলা হাফরাস্তা এলাকার নিজ অফিস থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। মিলন এবার উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী।

এলাকাবাসী জানায়, গতকাল দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে তালতলা হাফরাস্তা এলাকায় কর্মী সমর্থকদের বিদায় দিয়ে নিজ অফিসে বসে ছিলেন মিলন। এসময় একটি মাইক্রোবাসে আসা কয়েকজন অস্ত্রধারী মিলনকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর থেকে মিলনের সন্ধান আইন শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনী কেউ দিতে পারেনি।

নিখোঁজ মিলনের বাবা এমদাদুল হক মিয়াজি জানান, র‌্যাব পরিচয়ে তার ছেলেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তিনি তার সন্তানের সন্ধান চান। মিলনের বিরুদ্ধে কোনো মামলা নেই দাবি করেন এমদাদুল হক।

তবে বিষয়টি অস্বীকার করে র‌্যাব-৫ এর সিও মাহবুবুর রহমান জানান, মিলনকে র‌্যাব আটক করেনি।

এদিকে মিলনকে তুলে নেওয়ার প্রতিবাদ ও তার সন্ধানের দাবিতে তালতলা হাফরাস্তা এলাকায় থেকে তার কর্মী ও সমর্থকরা আজ শুক্রবার সকালে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিল নিয়ে তারা প্রথমে কানাইখালী পুরাতন বাসট্যান্ডে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে। পরে মিলনের বিক্ষুদ্ধ কর্মী সমর্থকরা সকাল ১১টা থেকে ১২ টা হরিশপুর বাইপাস সড়ক অবরোধ করে রাখে।

এসময় নাটোরের সঙ্গে সারা দেশের বাস চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে পুলিশ সদস্যরা মিলনকে শুক্রবারের মধ্যে সন্ধানের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেয় নেতা-কর্মীরা।

এ ব্যাপারে নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক সৈয়দ মোর্তুজা বাবলু বলেন, ‘আমরা নাটোর থানার ওসিসহ পুলিশ সুপারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। তারা আমাদের মিলনের সন্ধান দিতে পারেনি।’ তিনি জানান, মিলন যদি কোনো অপরাধ করে থাকে তাহলে তাকে আইনের আওতায় আনা হোক। মিলনের দ্রুত সন্ধানের জন্য স্থানীয় প্রশাসনের কাছে দাবি জানান বাবুল।

এ ব্যাপারে নাটোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জালাল উদ্দিন জানান, এই ঘটনায় আজ শুক্রবার দুপুরে নাটোর সদর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন মিলনের বাবা এমদাদুল হক মিয়াজি।পুলিশ মিলনের সন্ধানের চেষ্টা করছেন বলে জানান।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত