রবিবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

কোপায় খেলতে পারবেন তো নেইমার?

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম:  হায় হায়, চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোটা বুঝি তাঁর গেল! গত বুধবার নেইমার চোটে পড়ার পর পিএসজিতে এমনই একটি হাহাকার উঠেছিল। ব্রাজিলিয়ান তারকার চোটটা কেমন, তখনো কেউ জানতেন না। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর যখন জানা গেল, ডান পায়ের পঞ্চম মেটাটারসালে চিড় ধরা পড়েছে, হাহাকারটা বাড়ল। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে শেষ ষোলোতে খেলা নিয়ে শঙ্কা তো আছেই, পুরো মৌসুমই মাঠের বাইরে কাটাতে হতে পারে নেইমারকে।

নেইমার চোটটা পেয়েছেন স্ত্রাসবুর্গের বিপক্ষে ফ্রেঞ্চ কাপে শেষ ষোলোতে ২-০ গোলে জেতা ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে। পিএসজি ফরোয়ার্ডের চোট সেই পঞ্চম মেটাটারসালে, গত বছর যেখানে পাওয়া চোটে শঙ্কা জেগেছিল তাঁর বিশ্বকাপ শেষ হয়ে যাওয়ার। অস্ত্রোপচারের টেবিলে যেতে হয়েছিল তাঁকে। সেবার অবশ্য ৯৮ দিন পর মাঠে ফিরেছিলেন। খেলেছিলেন বিশ্বকাপেও। এবার তাঁকে অস্ত্রোপচার করাতে হবে কি না, তা কাল পর্যন্ত জানা যায়নি। অস্ত্রোপচার লাগলে মাঠে ফিরতে গত বছরের চেয়ে বেশি সময় লাগবে বলে মনে করা হচ্ছে।

পিএসজির চিকিৎসক দল পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানোর প্রাথমিক কাজটা সেরে রেখেছে। ক্লাবের আমন্ত্রণে কাল প্যারিসে পৌঁছেছেন ব্রাজিল দলের চিকিৎসক রদ্রিগো লাসমার। তিনি সবকিছু খুঁটিয়ে দেখবেন। পিএসজির চিকিৎসক দলের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবেন অস্ত্রোপচার করাতে হবে কি না। মৌসুম শেষ হয়ে গেলে ব্রাজিলের হয়ে দেশের মাটির কোপা আমেরিকায় হয়তো খেলা হবে না নেইমারের। টুর্নামেন্টটি ১৪ জুন শুরু হয়ে শেষ হবে ৭ জুলাই।

কোপা আমেরিকার দল নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছেন ব্রাজিল কোচ তিতে। তারই অংশ হিসেবে ইউরোপ সফরে বেরিয়েছেন। ঘুরে ঘুরে বিভিন্ন দেশের লিগ ম্যাচ দেখবেন ব্রাজিল কোচ। সঙ্গে আছেন ব্রাজিল দলের সমন্বয়ক এডু গাসপারও। দুজনেই আপাতত ফ্রান্সে রয়েছেন। নেইমারের সঙ্গে দেখাও করেছেন তিতে। তাড়াহুড়ো করে আয়োজন করা এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, পুরোপুরি সেরে না উঠলে নেইমারকে দলে ডাকবেন না, ‘ব্যক্তিগতভাবে সমবেদনা জানাতে আমি ওর সঙ্গে দেখা করেছি। (চোট নিয়ে) কোনো তথ্য থাকলে সেটি এডু গাসপার আর চিকিৎসক দল আপনাদের জানাবে। আমি জানি, আপনারা এ বিষয়ে অনেক কিছু জানতে চান। কিন্তু এটা নিয়ে কথা বলার লোক আমি নই।’

এই মুহূর্তে ব্রাজিলের সেরা খেলোয়াড় নেইমারই। দলের সেরা খেলোয়াড়কে কোপা আমেরিকায় না পেলে বড় একটা ধাক্কাই খাবেন তিতে, ‘আমি আপনাদের দুশ্চিন্তাটা বুঝতে পারি। কিন্তু আন্দাজে তো আর কিছু বলতে পারি না। পিএসজি কোচ টমাস টুখেলকেও আমি আমার দুশ্চিন্তার কথা বলেছি। টমাস টুখেলের মন খারাপ, আমরাও তা-ই।’

তিতে যেহেতু এডুকে দেখিয়ে দিয়েছেন, নেইমারের অবস্থা আসলে কী, সেটা জানতে তাঁকেই প্রশ্ন করেন সাংবাদিকেরা। লাসমারের কাছ থেকে রিপোর্ট পাওয়ার পরই এডু এ বিষয়ে জানাতে পারবেন, ‘নেইমার পিএসজির খেলোয়াড়। ক্লাবটির সিদ্ধান্তকে শ্রদ্ধা জানাতে হবে আমাদের। আমাদের চিকিৎসক রদ্রিগো লাসমার তাদের সাহায্য করবে। তবে পিএসজি উদার একটি ক্লাব। সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য সাহায্য করতে তারা লাসমারসহ অন্য বিশেষজ্ঞদের ডেকেছে।’

অস্ত্রোপচার করানো না লাগলেও মার্চ মাসের শেষ দিক পর্যন্ত নেইমারকে মাঠের বাইরে থাকতে হবে ধারণা করছেন অনেকে। সেই বাস্তবতা মেনে নিয়ে পিএসজি কোচ টুখেল আগেই বলেছেন, ‘(চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোতে) ওকে পাওয়াটা প্রায় অসম্ভব। নেইমার কবে ফিরবে, তার সম্ভাব্য তারিখ এখনই বলাটা সম্ভব নয়।’

ইউনাইটেডের বিপক্ষে শেষ ষোলোর প্রথম লেগের ম্যাচটি খেলতে পিএসজি ওল্ড ট্রাফোর্ডে যাবে আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি। নিজেদের মাঠে দ্বিতীয় লেগ ৬ মার্চ।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত