রবিবার, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

অভিনয় করে সরকার ৫ বছর কাটিয়েছে: ড. কামাল

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

২০১৪ সাল থেকে অভিনয় করতে করতে বর্তমান সরকার পাঁচ বছর কাটিয়ে দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন।

অভিনয়ের জন্য এ সরকারকে অস্কার দেয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সোমবার দুপুরে রাজধানীর পূর্বাণী হোটেলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহার ঘোষণা অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন ড. কামাল।

তিনি বলেন, ২০১৪ সালে হওয়া নির্বাচনের বৈধতা নিয়ে আদালতে আমাকে ডাকা হয়েছিল। সেখানে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল-পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য তারা ৫ জানুয়ারির নির্বাচন দিয়েছে।

কামাল হোসেন বলেন, ওই সময় দ্রুত সব দলকে নিয়ে তারা আরেকটি নির্বাচন দেয়ার কথা বলেছিলেন। কিন্তু সেই দ্রুত শব্দটির অর্থ এতদিনে বুঝতে পারলাম না। দ্রুত শব্দটি ডিকশনারিতে নতুন করে ঢুকানো দরকার যে, দ্রুত শব্দ বলতে কত দ্রুত বোঝানো হয়-৫ বছর?

তিনি বলেন, ২০১৪ সাল থেকে সরকার দিচ্ছি দিচ্ছি বলে পাঁচ বছর কাটিয়েছে। এই সরকারকে অভিনয়ের জন্য অস্কার দেয়া উচিত। কারণ তারা এই দিচ্ছি এই দিচ্ছি অভিনয় করে পাঁচ বছর কাটিয়ে দিয়েছে।

গণফোরাম সভাপতি বলেন, ২০১৪ সালের নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণ রাষ্ট্রের মালিকানা হারিয়েছে। জনগণকে হাড়ে হাড়ে তার মাসুল দিতে হচ্ছে।

‘এই বছরগুলোতে অর্থনীতি নানাভাবে বাধাগ্রস্ত হয়েছে। এ ছাড়া এই সরকারের আমলে সীমাহীন দুর্নীতি হয়েছে। হাজার হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি হয়েছে। ব্যাংকের কথা তো বলবই না, তা হলে রাষ্ট্রের ওপর মানুষ আস্থা হারাবে।’

ড. কামাল আরও বলেন, সংলাপের শেষ দিন আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে একটি আশ্বাস পেয়েছিলামআর অ্যারেস্ট হবে না। কিন্তু এর পর থেকে শুধু অ্যারেস্ট, অ্যারেস্ট আর অ্যারেস্ট। অ্যারেস্ট কোনোভাবেই বন্ধ হচ্ছে না।

‘তফসিল ঘোষণার পর থেকে এ পর্যন্ত ১৯০০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের নাম ও স্থানের তালিকা আমাদের কাছে রয়েছে। এটি একটি জাতীয় লজ্জার বিষয়। এটি শুনে আমাদের ১৬-১৭ কোটি মানুষ লজ্জা পাবে।

তিনি বলেন, যে স্বাধীনতার জন্য এত মানুষ প্রাণ দিয়েছে, বঙ্গবন্ধু প্রাণ দিয়েছে; সেই স্বাধীন দেশে ৪৭ বছর পরও জনগণকে এইভাবে আক্রমণ করা হচ্ছে।

ইশতেহার ঘোষণা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র ও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার নেতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, গণফোরাম নেতা সুব্রত চৌধুরী, মোস্তফা মহসিন মন্টু, ড. রেজা কিবরিয়া প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত