বুধবার, ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

আপাতত সবাইকেই আশ্বাস দিচ্ছে বিএনপি

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

নিউজগার্ডেনবিডিডটকম: 

যাকেই মনোনয়ন দেওয়া হয়, দলের পক্ষে সবাইকে ঐকবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানাচ্ছেন বিএনপির মনোনয়ন বোর্ডের সদস্যরা। আপাতত মনোনয়নপ্রত্যাশীদের মনোনয়ন দেওয়ার ব্যাপারে আশ্বস্ত করছেন তাঁরা।

আজ রোববার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকারের সময় ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত ছিলেন তারেক রহমান। রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের স্বাক্ষাৎকারের মাধ্যমে আজ এ প্রক্রিয়া শুরু করেছে বিএনপি।

শুরুতে সকাল ৯টা থেকে রংপুর বিভাগের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের স্বাক্ষাৎকার নেওয়া হয়। পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর, নীলফামারীর স্বাক্ষাৎকার শেষে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত রংপুর জেলার প্রার্থীদের স্বাক্ষাৎকার চলছিল।

এসব জেলার আসনগুলোর অন্তত ২০ জন মনোনয়নপ্রত্যাশীর সঙ্গে কথা হয়। তাঁরা জানান, প্রতি আসনে মননোয়নপ্রত্যাশী সবাইকে একসঙ্গে মনোনয়ন বোর্ডের সামনে ডাকা হচ্ছে। স্থায়ী কমিটির সদস্যরা আলাপ শুরু করছেন। ভিডিও কনফারেন্সে তারেক রহমান প্রত্যেকের কাছে জানতে চাচ্ছেন, কেন দলের প্রার্থী হতে চাইছেন। দলে তাঁর ভূমিকা কি, দলের জন্য তিনি কী করেছেন। তৃণমূল ও এলাকার মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ কেমন ইত্যাদি জানতে চান। মনোনয়ন বোর্ডের অন্য সদস্যদের সঙ্গে কথা বলার সময়ও পুরোটা সময় শুনছেন তারেক।

দিনাজপুর-১ আসনে মনোনয়নপ্রত্যাশী বীরগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, স্থায়ী কমিটির সদস্যরা বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন করেছেন। মনোনয়ন প্রত্যাশীদের বোর্ড সদস্যরা বলেন, মনোনয়ন যেই পাক, ঐকবদ্ধভাবে সবাইকে দলের পক্ষে কাজ করতে হবে।

দিনাজপুর-২ আসনের সাবেক সাংসদ রিয়াজুল হক চৌধুরীর ছেলে আল সাদিক রিয়াজ পিনাক চৌধুরী বলেন, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন মনোনয়নপ্রত্যাশীদের এমপি হলে কার কি লক্ষ্য উদ্দেশ্য এসব জানতে চেয়েছেন।

পঞ্চগড় ২ আসনের মনোনয়নপ্রত্যাশী ফরহাদ হোসেন বলেন, তারেক রহমান এক এগারো পরবর্তী সময়ে তাদের ভূমিকার বিষয়ে জানতে চেয়েছেন। আপাতত সবাইকেই মনোনয়নপত্র দেওয়া হয়েছে। চূড়ান্ত করে কিছুদিনের মধ্যেই জানিয়ে দেওয়া হবে।

পিপলস পার্টি অব বাংলাদেশের আহ্বায়ক রিটা রহমানও রংপুর ৩ ও নীলফামারী ১ আসনে বিএনপির দলীয় মনোনয়ন চেয়েছেন।

মনোনয়ন বোর্ডে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্যদের মধ্যে মইন খান, নজরুল ইসলাম, জমিরউদ্দিন সরকার, মওদুদ আহমেদ, লে. জে. (অব) মাহবুবুর রহমান, রফিকুল ইসলাম মিয়া, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী উপস্থিত আছেন।

Print Friendly, PDF & Email

মতামত